বুধবার সকালে আঘাত হানবে ঘূর্ণিঝড় ‘যশ’

ঘূর্ণিঝড় ‘যশ’ বুধবার সকালের দিকেই কলকাতায় আছড়ে পড়তে চলেছে। এছাড়া মঙ্গলবার থেকেই উপকূলবর্তী জেলাগুলোতে অল্প থেকে মাঝারি বৃষ্টিপাত শুরু হবে। ফাঁকা এলাকায় ঝড়ো হাওয়ার সঙ্গে প্রবল বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে।

আজ বৃহস্পতিবার এসব তথ্য জানায় আলিপুর আবহাওয়া দফতর।

দেশটির আবহাওয়াবিদদের আশঙ্কা, শক্তি বাড়িয়ে এই ঘূর্ণিঝড় গত বছরের আম্পানের মতো সুপার সাইক্লোনে পরিণত হতে পারে। আছড়ে পড়তে পারে ভয়ঙ্কর রূপ নিয়ে। আপাতত ঘূর্ণিঝড়টির গতিবিধির দিকে খেয়াল রাখছেন আবহাওয়াবিদরা।

ভারতের আলিপুর আবহাওয়া অধিদপ্তর সূত্রে জানা যায়, একসঙ্গে দুটি নিম্নচাপ ঘনীভূত হচ্ছে। একটি বঙ্গোপসাগরে আরেকটি আরব সাগরে। আন্দামানের উত্তরে এবং পূর্ব-মধ্য বঙ্গোপসাগরের কাছে আগামী ২২ মে নাগাদ একটি নিম্নচাপ তৈরি হতে চলেছে। ওই নিম্নচাপটি ক্রমশ শক্তি সঞ্চয় করে ঘূর্ণিঝড়ের আকার নেবে ২৪ মের মধ্যে।

এদিকে চলমান তাপপ্রবাহের ফলে বঙ্গোপসাগরের পৃষ্ঠদেশ উত্তপ্ত হয়ে উঠছে। ফলে একটি লঘুচাপ সৃষ্টির আভাস রয়েছে। এতে বঙ্গোপসাগরে সৃষ্টি হবে ঘূর্ণিঝড় ‘যশ’; যা সুন্দরবনে আছড়ে পড়তে পারে সুপার সাইক্লোন আম্পানের মতো ভয়াবহ শক্তি নিয়ে।