১৩ বছর পর মুখ খুললেন সানিয়া মির্জা

২০০৮ সালে বেইজিংয়ে অনুষ্ঠিত অলিম্পিক থেকে মাঝপথ থেকে সরে যেতে হয়েছিল ভারতের টেনিস তারকা সানিয়া মির্জাকে। যা এখনও মন থেকে মেনে নিতে পারেননি তিনি। মাঝপথ থেকে সরে যাওয়া নিয়ে ১৩ বছর পর মুখ খুললেন তিনি ।

সম্প্রতি এক ইউটিউব চ্যানেলকে সানিয়া মির্জা বলেছেন, প্রত্যেক ক্রীড়াবিদ দেশের হয়ে খেলতে নামলে সেরাটা দেওয়ার চেষ্টা করে। আমিও সেই মানসিকতা নিয়ে বেইজিং অলিম্পিকে শুরু করতে চেয়েছিলাম। কিন্তু ডান হাতের কব্জির যন্ত্রণা খুব ভোগাতে শুরু করে। তখন আমার মাত্র ২০ বছর বয়স। সে বারের চোট আমাকে মানসিকভাবে অনেক পিছনে ঠেলে দেয়। শুধু কাঁদতাম। প্রায় এক মাস খাওয়া-দাওয়া বন্ধ করে দিয়েছিলাম। প্রায় তিন-চার মাস নিজেকে ঘরবন্দি করে রাখার জন্য মানসিক অবসাদে চলে গিয়েছিলাম।

তিনি আরও বলেন, মানুষের জীবনে এমন অনেক ঘটনা ঘটে থাকে যেগুলোর উপর আমাদের নিয়ন্ত্রণ থাকে না। এখন বয়স বেড়েছে। তাই মনে হয় তখন অবসাদে চলে গিয়ে নিজের ক্ষতি না করলেও চলত। আসলে কম বয়সে পরিচিতি পেয়ে যাওয়ার জন্য সবাই বাড়তি আশা করেছিল। সেটা পূরণ করতে না পারার জন্যই হয়তো এতটা বাড়াবাড়ি করে ফেলেছিলাম।

সূত্র: আনন্দবাজার পত্রিকা