নওমুসলিম ফারুক হত্যার প্রতিবাদে খাগড়াছড়িতে মানববন্ধন

বান্দরবানের রোয়াংছড়ির তুলাছড়ি পাড়া জামে মসজিদের ইমাম নওমুসলিম মো. ওমর ফারুককে গুলি করে হত্যার প্রতিবাদে পার্বত্য খাগড়াছড়িতে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে।

আজ মঙ্গলবার (২২ জুন) বেলা ১১টার দিকে খাগড়াছড়ি জেলা শহরের শাপলা চত্বরে কওমি মাদরাসা ও ওলামা ঐক্য পরিষদ এবং ইসলামী রেঁনেসার ব্যানারে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। মানববন্ধনে সভাপতিত্ব করেন ক্বারী উসমান গনী।

নওমুসলিম ফারুক হত্যাকাণ্ডের জন্য সন্তু লারমার নেতৃত্বাধীন জেএসএস সন্ত্রাসীদের দায়ী করেন বক্তারা। পাশাপাশি তারা পাহাড়ে সেনাক্যাম্প স্থাপন, চিরুনি অভিযান চালিয়ে অবৈধ অস্ত্র উদ্ধার ও ওমর ফারুক হত্যাকারীদের গ্রেফতারসহ সাত দফা দাবি জানান। অন্যথায় কঠোর আন্দোলনের হুমকি দেন।

স্থানীয়দের দাবি, ত্রিপুরা জনগোষ্ঠীর হয়েও খ্রিস্টান ধর্ম ত্যাগ করে মুসলিম ধর্ম গ্রহণ করায় সশস্ত্র সন্ত্রাসী একটি গ্রুপ তাকে দীর্ঘদিন ধরে হুমকি দিয়ে আসছিল। হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে পাহাড়ের আঞ্চলিক রাজনৈতিক সংগঠন জনসংহতি সমিতির সশস্ত্র শাখার ক্যাডাররা জড়িত।

গত শুক্রবার (১৮ জুন) রোয়াংছড়ি সদর ইউনিয়নের তুলাছড়ি আগা পাড়া এলাকায় মসজিদে নামাজ পড়ে বাড়ি ফেরার সময় অস্ত্রধারী সন্ত্রাসীদের গুলিতে নিহত হন নওমুসলিম ওমর ফারুক। রোয়াংছড়ি সদর ইউনিয়নের তুলাছড়ি আগা পাড়া এলাকার বাসিন্দা তিনি। তার জন্মগত নাম পূর্ণচন্দ্র ত্রিপুরা। বাবার নাম তয়ারাম ত্রিপুরা। ত্রিপুরা থেকে ধর্মান্তরিত হয়ে তিনি মুসলমান হন।