ব্রাজিলের ম্যাচ দিয়ে কোপা আমেরিকা শুরু ১৩ জুন

কোপা আমেরিকা শুরু হওয়ার কথা ছিল ২০২০ সালে। করোনাভাইরাসের কারণে এক বছর পিছিয়ে যায়। আয়োজনের যৌথ দায়িত্বে ছিল আর্জেন্টিনা ও কলম্বিয়া। কিন্তু পরিস্থিতি ক্রমশ জটিল হয়ে ওঠে। রাজনৈতিক অস্থিরতার জন্য কনমেবল ঘোষণা করে, খেলা হবে না কলম্বিয়ায়। আর্জেন্টিনার প্রেসিডেন্ট আলবার্তো ফের্নান্দেস তখন বলেছিলেন, তাঁরা একক ভাবে প্রতিযোগিতার আয়োজন করতে তৈরি। সঙ্গে পেরু, ভেনেজ়ুয়েলার মতো কয়েকটি দেশ যৌথ দায়িত্বেও আগ্রহী ছিল।

এ দিকে, কলম্বিয়ারই প্রচারমাধ্যমে সে সময় লেখা হয়, কনমেবল দায়িত্ব দিচ্ছে যুক্তরাষ্ট্রকে। যদিও সে সবের কোনওটাই সত্যি হল না। একেবারে শেষমুহূর্তে কোপার আয়োজন করতে বলে দেওয়া হল নেমার দা সিলভা স্যান্টোস জুনিয়রের দেশকে। এবং সানন্দে রাজিও হয়ে গেল ব্রাজিল।

এই নিয়ে টানা দু’বার কোপা হচ্ছে ব্রাজিলে। এমন নয় সে দেশে করোনা-পরিস্থিতি খুব ভাল। বরং উল্টোটাই সত্যি। সব মিলিয়ে পেলের দেশে কোভিডে মৃতের সংখ্যা শুধু সরকারি হিসেবেই ৪ লক্ষ ৬০ হাজার! এত কিছুর পরেও ব্রাজিল কোপার দায়িত্ব পাওয়ায় অনেকেই তাই অবাক।

গ্রুপ এ তে রয়েছে যে দেশঃ ব্রাজিল, পেরু, কলম্বিয়া, ভেনজুয়েলা,ইকুয়েডর। গ্রুপ বি তে রয়েছে যে দেশঃ আর্জেন্টিনা, প্যারাগুয়ে, বলিভিয়া, উরুগুয়ে, চিলি। ১৩ জুন গ্যারিঞ্চা স্টেডিয়ামে ব্রাজিল-ভেনজুয়েলার ম্যাচ দিয়ে শুরু কোপা আমেরিকার প্রথম খেলা। রিয়োর নিল্টন স্যান্টোস স্টেডিয়ামে ১৪ জুন হবে আর্জেন্টিনার প্রতিপক্ষ চিলির খেলা।

এবার কোপা আমেরিকার খেলা হবে একমাত্র রিয়োরই দু’টি স্টেডিয়ামে। বাকি শহরগুলিতে একটি করে স্টেডিয়ামেই ম্যাচ হচ্ছে। জিয়োইয়ানা, কুইবার মতো শহরেও খেলা হবে। সেমিফাইনাল হওয়ার কথা ৬ ও ৭ জুলাই যথাক্রমে নিল্টন স্যান্টোস স্টেডিয়াম ও মানে গ্যারিঞ্চা স্টেডিয়ামে। তবে কোপা আমেরিকার ফাইনাল হবে মারাকানা স্টেডিয়ামে ১১ জুলাই সকাল ৬ টায়।

উল্লেখ্য, কোপা আমেরিকার সকল খেলা দক্ষিণ এশিয়ায় সরাসরি সম্প্রচার করবে সনি নেটওয়ার্ক। বাংলা, হিন্দি, ইংরেজি সহ বেশ কয়েকটি ভাষায় সনি সিক্স, সনি টেন ও সনি লাইভে সরাসরি খেলা দেখা যাবে। বাংলাদেশের দুই চ্যানেল টি-স্পোর্টস ও গাজী টেলিভিশন ও সরাসরি সম্প্রচার করানোর সম্ভাবনা রয়েছে।