পোলার্ড-আফ্রিদি-মিলারদের ছাড়িয়ে বিশ্বে এক নম্বর মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ

শেষ টি-টোয়েন্টিতে জিম্বাবুয়েকে ৫ উইকেটে হারিয়ে ২-১ ব্যবধানে সিরিজ জিতেছে বাংলাদেশ। এদিন ৪ নম্বরে ব্যাটিংয়ে নেমে দলকে জেতাতে গুরুত্বপূর্ণ ভুমিকা পালন করেছেন অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। খেলেছেন ২৮ বলে ৩৪ রানের ইনিংস। স্বভাবতই রিয়াদ খেলতে নামেন ৬ তে। কেননা এখন পর্যন্ত এই পজিশনে মাহমুদউল্লাহ শুধু দেশের নয় বিশ্বেরই সেরা।

মাহমুদউল্লাহকে লড়াই করতে হয়েছে পোলার্ড, ধোনি, মিলারদের মত ব্যাটসম্যানদের। আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে ৬ নম্বরে ব্যাটিং করে সর্বোচ্চ রানের তালিকাতে মাহমুদউল্লাহ ৬৭০ রান করে রয়েছেন প্রথম স্থানে। তারপরেই ৬৪৫ রান করে দ্বিতীয় স্থানে আছেন ডেভিড মিলার এবং ৬২৪ রান করে তৃতীয় স্থানে রয়েছেন মহেন্দ্র সিং ধোনি। চতুর্থ স্থানে আছেন ৪৬৮ রান করা পাকিস্তানের শহীদ আফ্রিদি। পঞ্চম স্থানে আছেন ওয়েস্ট ইন্ডিজের কাইরন পোলার্ড। তার রান ৪৪৭।

আরো একটি রেকর্ডে নাম লেখালেন মাহমুদউল্লাহ। টি-২০ ক্রিকেটে ৮৩ ইনিংসের মধ্যে মাত্র ২টিতে রানের মুখ দেখেননি মাহমুদউল্লাহ। দু’টিই পাকিস্তানের বিপক্ষে। ২০১০ সালে সেন্ট লুসিয়ায় এবং ২০১২ সালে পাল্লেকেলেতে সেই হতাশা আছে সাইলেন্ট কিলার খ্যাত মাহমুদউল্লাহ।

২০১২ সালের ১০ ডিসেম্বর থেকে ২০২১ সালের ২৩ জুলাই-এই লম্বা সময় টানা ৬৫ ইনিংসে মাহমুদউল্লাহ টি-২০ আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে একবারও ‘০’ তে আউট হননি! ২০১২ সালের ১০ ডিসেম্বর থেকে ২০২১ সালের ২৩ জুলাই-এই লম্বা সময় টানা ৬৪ ইনিংসে মাহমুদউল্লাহ টি-২০ আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে একবারও ‘০’ তে আউট হননি!

টি-২০ ক্যারিয়ারে ৯৮ ইনিংসের মধ্যে ‘০’ কেবল তার একটি ইনিংসে। ২০০৭ সালের ১৪ সেপ্টেম্বর থেকে ২০১০ সালের ২০ মে-এই লম্বা সময় টানা ৮৪ ইনিংসে একবারও ‘০’ তে আউট হননি ধোনি। ধোনির এই রেকর্ডের দিকেই এখন যেনো চোখ মাহমুদউল্লাহর। শুন্যহীন টানা ইনিংসের রেকর্ডে ধোনি (৮৪) ছাড়া মাহমুদউল্লাহর উপরে আছেন দক্ষিণ আফ্রিকার ডেভিড মিলার (৭৮), নিউজিল্যান্ডের মার্টিন গাপটিল (৬৯)।