বাসের মালামাল রাখার বক্সে ৪৬টি ছাগল, মালিকসহ আটক ২

দিনাজপুর থেকে একটি যাত্রীবাহী বাসের মালামাল রাখার বক্সে গাদাগাদি করে রেখে সিলেটে নেওয়া হয় ৪৬টি ছাগল। বিষয়টি গণমাধ্যমে প্রকাশিত হওয়ার পর তা পুলিশের নজরে আসে এবং বাসের বক্সে ছাগল পরিবহনের দায়ে ছাগলগুলোর মালিকসহ দুজনকে শনিবার আটক করে পুলিশ।

আটক দুজন হলেন- ছাগলের মালিক মো. মোয়াজ্জেম হোসেন ও মো. জিন্নাহ। তাদের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন।

গতকাল শনিবার (১৭ জুলাই) পুলিশ সদর দপ্তরের সহকারী মহাপরিদর্শক (এআইজি) সোহেল রানা একথা জানান।

গত ১৬ জুলাই গণমাধ্যমে প্রকাশিত সংবাদ থেকে জানা যায়, দিনাজপুর থেকে নওশীন পরিবহন নামক বাসের মালামাল রাখার বক্সে গাদাগাদি করে আটকে সিলেটে নেওয়া হয়েছে ৪৬টি ছাগল। বর্বরোচিত উপায়ে বক্সের মধ্যে দীর্ঘ সময় ঠাসাঠাসি করে রাখায় অসুস্থ হয়ে পড়ে ছাগলগুলো।

বিষয়টি নজরে আসার পরপরই দিনাজপুর জেলার সদর থানার ওসিকে তদন্ত করে দ্রুত ব্যবস্থা নিতে বলে পুলিশের মিডিয়া অ্যান্ড পাবলিক রিলেশন্স বিভাগ। এরপর পুলিশ ছাগলের মালিক মোয়াজ্জেমকে গাইবান্ধার সীমান্তবর্তী এলাকা থেকে আটক করে। পরে জিন্নাহ নামে আরও একজনকে আটক করে পুলিশ।

দিনাজপুর সদর থানার ওসি জানান, বাসটি তার এলাকা থেকে ছেড়ে গেলেও বগুড়া জেলার শিবগঞ্জ থানা এলাকায় যাত্রাবিরতির সময় ঐ বাসে ছাগলগুলো তোলা হয়। এরপর বিষয়টি শিবগঞ্জ থানার ওসি মো. সিরাজুল ইসলামকে অবগত করে অপরাধীদের দ্রুত খুঁজে বের করে আইনে আওতায় আনার নির্দেশনা দেয় মিডিয়া অ্যান্ড পাবলিক রিলেশন্স বিভাগ। ছাগল পরিবহনের সঙ্গে সম্পৃক্ত অন্যদেরও আইনের আওতায় আনার চেষ্টা চলছে বলেও জানান তিনি।