ক্ষমতায় তালেবান, পাকিস্তানের সঙ্গে বাণিজ্য বেড়েছে আফগানিস্তানের

তুরস্কের সঙ্গে ভালো সম্পর্ক গড়তে আগ্রহী বলে জানিয়েছে তালেবান। এক সাক্ষাৎকারে তালেবানের মুখপাত্র সুহাইল শাহিন বলেন, তার দেশ বিভিন্ন ক্ষেত্রে আঙ্কারার সঙ্গে সহযোগিতামূলক সম্পর্ক রাখতে আগ্রহী। খবর ডেইলি সাবাহর।

নতুন খবর হচ্ছে, তালেবান ১৫ আগস্ট ক্ষমতা দখলের পর আফগানিস্তানের বড় শহরগুলোতে বাণিজ্য বন্ধ ছিল। প্রায় ১৯ দিন ব্যবসা-বাণিজ্য বন্ধ থাকার পর পাকিস্তানের রপ্তানিকারকরা আফগানিস্তানে পণ্য রপ্তানি শুরু করেছে।

আফগানিস্তানের ব্যবসায়ী আব্দুল রহিম কাজিযাই বলেন, তালেবান যখন বড় শহরগুলো দখল করে তখন অবস্থা খারাপ হতে পারে ভেবে আমি পাকিস্তানে কোনো পণ্যের অর্ডার করিনি। কিন্তু এখন আমি পাকিস্তানের ব্যবসায়ীদের সঙ্গে যোগাযোগ করে চিনি এবং রান্নার তেলের অর্ডার করেছি।

তুরস্কের আনাদোলু এজেন্সির খবরে বলা হয়েছে, বুধবার খাইবার পাস এলাকায় শত শত ট্রাক অপেক্ষারত অবস্থায় দেখা গেছে। খাদ্যপণ্যে ভর্তি ট্রাকগুলো আফগানিস্তানের জালালাবাদে যাওয়ার অপেক্ষা করছে। আফগান সাইডে পার্কিংয়ের জায়গা না থাকায় ড্রাইভারদের তিন-চার দিন অপেক্ষা করতে হচ্ছে। কিন্তু এই দীর্ঘ সারি দুই দেশের মধ্যে অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ড শুরুর ইঙ্গিত দেয়।

আফগানিস্তান কপার, সোনা, তেল, প্রাকৃতিক গ্যাস, ইউরেনিয়াম, বক্সাইট, কয়লা, লোহা, জিপসাম, জিংক , জেমস্টোনসহ অসংখ্য প্রাকৃতিক সম্পদে ভরপুর দেশ। কিন্তু ২০ বছর ধরে দেশটিতে যুদ্ধ থাকায় এগুলো অনাবিষ্কৃত থেকে গেছে।