বাংলাদেশের দুটি জাতীয় দল গঠন নিয়ে যা বললেন আকরাম খান

প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে খেলাধুলার দৃশ্যপট। জৈব সুরক্ষিত পরিবেশে কঠোর জীবন যাপনের মধ্য দিয়ে থাকতে হয় খেলোয়াড়দের। এক দেশ থেকে আরেক দেশে গিয় লম্বা সিরিজ খেলতে খেলতে হাপিয়ে ওঠেন ক্রিকেটাররা। ভারত-অস্ট্রেলিয়ার মতো বড় দেশগুলো ভিন্ন দল করে বেছে নিয়েছে পথও।

বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডও (বিসিবি) সেই ভাবনায় এগোনোর কথা জানায়। খোদ সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন ঘোষণা দিয়েছিলেন দুটি জাতীয় দলের৷ তবে বিসিবির ক্রিকেট অপারেশন্সের চেয়ারম্যান আকরাম খান জানিয়েছেন আপাতত হচ্ছে না দুটি জাতীয় দল। আজ রবিবার (১৯ সেপ্টেম্বর) রাজধানীর মহাখালী ডিওএইচএসে নিজ কার্যালয়ে গণমাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে আকরাম বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

এ সময় তিনি বলেন, ‘বিশ্বকাপের পরপরই পাকিস্তান আসবে, দুটি টেস্ট ও তিনটি টি-টোয়েন্টি খেলবে। এরপরই কিন্তু দল নিউজিল্যান্ডে চলে যাবে। আগে মানিয়ে নিতে একটু সমস্যা হচ্ছিল কিন্তু এখন আর হচ্ছে না। দুইটা দল করার কথা উঠেছিল পাকিস্তান ও নিউজিল্যান্ড সিরিজ সাংঘর্ষিক হওয়ায়। সেই জিনিসটা এখন আর হচ্ছে না তাই দুটি দলের চিন্তাধারাও করতে হচ্ছে না।’

বিশ্বকাপের পর আগামী ১৯ নভেম্বর থেকে শুরু হবে বাংলাদেশ-পাকিস্তান সিরিজ। এই সফরে বাংলাদেশ-পাকিস্তান ৩টি করে ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি খেলবে। ডিসেম্বরে সিরিজ শেষ হলে নিউ জিল্যান্ডে সফর করবে বাংলাদেশ। কিউইদের দেশে কোয়ারেন্টাইন করার মতো সময় হাতে থাকায় দুটি দলের কথা ভাবতে হচ্চে না বিসিবিকে।

আকরাম বলেন, ‘আমরা চিন্তাধারা রেখেছি। অনেক খেলোয়াড় উঠে আসছে, ভালোও করছে। এই সুযোগ থাকলে ভালো। তবে এই পরিস্থিতিতে দুটি দল হচ্ছে না।’

তবে এর আগে বিসিবি সভাপতি জোর দিয়েই বলেছিলেন দুটি জাতীয় দলের কথা। ‘আমাদের দুটি জাতীয় দল একসঙ্গে খেলবে এমন সময় আসতে বেশি দেরি নেই বলে আমার ধারণা। নভেম্বরে পাকিস্তান আসার কথা আমাদের দেশে, শ্রীলঙ্কা ও নিউ জিল্যান্ড সিরিজও আছে। সুতরাং হতেই পারে।’