বাংলাদেশে বিশ্বকাপ আয়োজনের দায় দায়িত্ব নিলেন প্রধানমন্ত্রী

আগামী ২০২৪ থেকে ২০৩১ এই সময়কালে বেশ কয়েকটি আইসিসি ইভেন্ট মাঠে গড়াবে। যেখানে কিছু ইভেন্ট আয়োজনে ইতোমধ্যে আবেদন করেছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডও (বিসিবি)। আর এসব আয়োজনে প্রধানমন্ত্রীর অনুমোদন লাগে, বিসিবি সেটি পেয়েও গেছে। দেশে যেকোনো আইসিসি ইভেন্টের সকল দায় দায়িত্ব নিজে নিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, বলছেন বর্তমান বোর্ড সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন।

এদিকে আইসিসি ইভেন্ট আয়োজনের ইচ্ছে থাকলেও ওয়ানডে বিশ্বকাপ এককভাবে আয়োজন সম্ভব হবেনা বাংলাদেশের। মূলত মাঠ সংকটেই সেটি পারছেনা দেশের ক্রিকেট নিয়ন্ত্রক সংস্থা। অন্তত ১০ টি আন্তর্জাতিক সুযোগ সুবিধা সম্পন্ন মাঠ প্রয়োজন হয়। ফলে এককভাবে নয়, যৌথভাবে ওয়ানডে বিশ্বকাপ আয়োজনের আবেদন করেছে বিসিবি।

আজ ১২তম বোর্ড সভা শেষে বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন বলেন, ‘আমরা আইসিসি চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির জন্য একক ভাবে আবেদন করেছি। কারণ এই ইভেন্ট করার জন্য যে কয়টা স্টেডিয়াম দরকার সেটা আমাদের আছে। আর টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের জন্য আমরা শ্রীলঙ্কার সঙ্গে যুগ্ম ভাবে আবেদন করেছি।’

তিনি আরও বলেন, ‘ওই বিশ্বকাপের জন্য যে পরিমান স্টেডিয়াম দরকার সেটা আমাদের নেই, দুটো দেশ মিলে করা যায়। আর ওয়ানডে বিশ্বকাপের জন্য আমরা তিনটা দেশ – বাংলাদেশ, শ্রীলঙ্কা ও পাকিস্তান মিলে আবেদন করেছি।’

পাপন বলেন, ‘এখানে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হলো সরকারি বিভিন্ন মন্ত্রনালয় থেকে অনুমতি বা গ্যারান্টির দরকার ছিল। আমরা আনন্দের সঙ্গে শেয়ার করছি যে আমরা এই সংক্রান্ত অনুমতি নেয়ার যে পত্র দরকার হয় সেটার প্রথম পত্রটাই পেয়েছি মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কাছ থেকে, ওনার নিজের সই করা- যে এখানে যদি কোন টুর্নামেন্ট হয় তো সমস্ত দায়িত্ব নিচ্ছে বাংলাদেশ সরকার। এখানে অনেক দেশের কিন্তু এ ব্যাপারে সমস্যা হচ্ছে।’