বিশ্বকাপে ঠিকই জ্বলে উঠবে বাংলাদেশঃ সাবেক টাইগার অধিনায়ক

মিরপুরের উইকেটে অজি আর কিউইদের বিপক্ষে রান করতে না পারলেও বিশ্বকাপে ঠিকই জ্বলে উঠবে টাইগার ব্যাটসম্যানরা। তবে মধ্যপ্রাচ্যের ফ্ল্যাট উইকেটে বোলারদের নিয়েই কিছুটা শঙ্কিত সাবেক অধিনায়ক রকিবুল হাসান। যদিও সাকিব-নাসুমদের স্পিনের ওপর ভরসা রাখছেন সাবেক এই টাইগার ক্রিকেটার।

সাবেক এই টাইগার অধিনায়ক বলেন, মিরপুরের উইকেট আমাদের জন্য সুবিধাজনক ছিল না। এটা কারো জন্যই ছিল না। অনেক কম রান হয়েছে। টি-টোয়েন্টিতে এত কম রান হয় না। কিন্তু আসন্ন বিশ্বকাপে বিশ্বকাপে বাংলাদেশের ব্যাটসম্যানরা খুবই ভালো করবে, সেটা আমি নিঃসন্দেহে বলতে পারি। কারণ আইসিসি যখন তাদের টুর্নামেন্ট আয়োজন করে, সেই টুর্নামেন্টের উইকেট তারা বানায়। আর ওই উইকেটে তারা রানের উইকেটই বানায়।

এদিকে বোলারদের কার্যকারিতা নিয়ে শঙ্কা আছে, আছে ভরসার জায়গাও। সাকিব-নাসুমে মুগ্ধ হয়েছেন। শেখ মেহেদীর ক্রিকেট জ্ঞান নিয়েও প্রশংসা এই অগ্রজের কণ্ঠে। সঙ্গে মনে করিয়ে দিলেন শর্টার ফরম্যাটে লেগস্পিনারের গুরুত্বের কথাও।

এ সময় রকিবুল বলেন, মিরপুরে কিছুটা যে সুবিধা পেয়েছে, তা বিশ্বকাপে পাবে না। আমি খুব আশাবাদী নাসুমকে নিয়ে। সেই সঙ্গে শেখ মেহেদীকে নিয়েও। লেগস্পিনাররা একটু বেশি সুবিধা পায়। কারণ বোল টার্ন করে। আর ব্যাটসম্যান মারকুটে অবস্থায় থাকে। তখন আউট হওয়ার সুযোগ বেশি থাকে।

এদিকে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের মিশনে ৪ অক্টোবর ওমানের উদ্দেশে দেশ ছাড়বে মাহমুদউল্লাহ বাহিনী। আগামী ১৭ অক্টোবর শুরু হবে বাংলাদেশ দলের বিশ্বকাপ মিশন। প্রথম রাউন্ডে টাইগারদের প্রথম প্রতিপক্ষ স্কটল্যান্ড। ‌‘বি’ গ্রুপের অন্য দুই দল স্বাগতিক ওমান ও পাপুয়া নিউগিনি। প্রথম রাউন্ডে সেরা দুই দলের মধ্যে থাকলে বাংলাদেশ পাবে সুপার-১২’র টিকিট।

বাংলাদেশের সব ম্যাচ মাঠে গড়াবে ওমানে। বাছাইপর্ব উতরে যেতে পারলে মূল পর্বে বাংলাদেশ প্রতিপক্ষ হিসেবে পাবে ভারত, পাকিস্তান, আফগানিস্তান, নিউজিল্যান্ডকে। এ ছাড়া বাছাইপর্ব পেরিয়ে আসা একটি দলের সঙ্গেও খেলতে হবে টাইগারদের।