রিয়াদকে নায়ক হতে শিখিয়েছিলেন জালাল চৌধুরী

বাংলাদেশের ক্রিকেটকে আজকের এই উচ্চ পর্যায়ে নিয়ে আসতে যে কয়জন ক্রিকেটার সামনে থেকে নেতৃত্ব দিয়েছেন তাঁর মধ্যে রিয়াদ অন্যতম। এই পর্যন্ত অনেক রেকর্ড নিজেদের করে নিয়েছেন এই তারকা ক্রিকেটার।

নতুন খবর হচ্ছে, দেশের ক্রিকেটে বেশ পরিচিত এবং জনপ্রিয় নাম ছিলেন জালাল আহমেদ চৌধুরী। ১৯৭৯ সালে দেশের প্রথম আইসিসি ট্রফি অভিযানে তিনি এবং ওসমান খান ছিলেন দলের কোচ। ১৯৯৭ সালে আইসিসি ট্রফি জয়ী বাংলাদেশ জাতীয় দলের প্রস্তুতিতে প্রধান কোচ গর্ডন গ্রিনিজের সহকারী ছিলেন তিনিই, করেছিলেন প্রাথমিক দল গড়ার কাজ। এছাড়াও দেশের ঘরোয়া ক্রিকেটে কোচিং করিয়েছেন দীর্ঘদিন।

তার মৃত্যুকে ঘিরে দেশের ক্রিকেট অঙ্গনে নেমে এসেছে শোকের ছায়া। বাংলাদেশের অনেক ক্রিকেটারই উঠে এসেছেন জালাল আহমেদ চৌধুরীর হাত ধরে। বর্তমানে খেলা অনেক ক্রিকেটারের ছোটবেলার কোচ ছিলেন তিনি। তাকে নিয়ে অনেক স্মৃতির কথাও জানিয়েছেন ক্রিকেটাররা।

বাংলাদেশ জাতীয় দলের টি-টোয়েন্টি অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ রিয়াদও স্মরণ করেছেন জালাল স্যারের কথা, “জালাল স্যার আজ আর নেই। ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাহি রাজিউন। আমি প্রথম যখন প্রিমিয়ার লিগ খেলি স্যার আমার কোচ ছিলেন। অনূর্ধ্ব-১৯ খেলার সময়ও কোচ ছিলেন।”

রিয়াদকে একটা স্পেশাল কথা বলেছিলেন প্রিয় জালাল আহমেদ। সেই কথাটা এখনো মনে আছে রিয়াদের,

“স্যারের স্পেশাল একটা কথা আমার এখনো মনে আছে। প্রথম গ্রামীনফোন কর্পোরেট লিগ হচ্ছিল সম্ভবত, ২০০৫ সালের দিকে তখন উনি ফাইনালের দিন বলেছিলেন ‘হিরো হওয়ার দিন প্রতিদিন আসে না আজকেই হিরো হওয়ার দিন।’ এটা আমার জীবনের অন্যতম সেরা একটি উক্তি। স্যার ওপারে ভালো থাকুন। আল্লাহ্‌ আপনাকে জান্নাতবাসী করুক। আমীন।”