এবার বাঁশখালীতে মন্দিরে ঢিল, প্রতিমা ভাংচুর

শারদীয়া দুর্গাপূজাকে ‘অকালবোধন’ বলা হয়। কালিকা পুরাণ ও বৃহদ্ধর্ম পুরাণ অনুসারে, রাম ও রাবণের যুদ্ধের সময় শরৎকালে দুর্গাকে পূজা করা হয়েছিল। হিন্দুশাস্ত্র অনুসারে, শরৎকালে দেবতারা ঘুমিয়ে থাকেন। তাই এই সময়টি তাঁদের পূজা যথাযথ সময় নয়।

নতুন খবর হচ্ছে, শারদীয় দুর্গোৎসবের মধ্যে চট্টগ্রামের বাঁশখালী উপজেলায় পূজা মণ্ডপে প্রতিমা ভাংচুরের ঘটনা ঘটেছে।

বুধবার সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে উপজেলার চাম্বল ইউনিয়নের পশ্চিম চাম্বল জেলে পাড়া এলাকার বুড়া কালী মন্দির মণ্ডপে এ হামলা হয় বলে পুলিশ ও স্থানীয়রা জানিয়েছে।

উপজেলা পূজা উদযাপন কমিটির সভাপতি ডা. আশীষ শীল বলছেন, কুমিল্লায় কুরআন শরিফ অবমাননার কথিত অভিযোগের রেশ ধরে বাঁশখালীর চাম্বল এলাকায় হওয়া মিছিল থেকে এ হামলার ঘটনা ঘটেছে।

“পশ্চিম চাম্বল বুড়া কালী মন্দিরে একটি মিছিল থেকে হামলা হয়েছে। এসময় দুর্গা প্রতিমা লক্ষ্য করে ইটপাটকেল নিক্ষেপ করা হয়। এতে সরস্বতী, কার্তিক ও গনেশ মূর্তি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।”

মণ্ডপের বেশ কয়েকজনও আহত হন বলে দাবি করেন তিনি।

এ বিষয়ে চাম্বল ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মুজিবুল হক চৌধুরী বলেন, “মিছিল থেকে কয়েকটি পাথর মেরেছে। তবে তেমন কোনো ক্ষয়ক্ষতি হয়নি।”