কানাডায় হিজাব পরায় নারীদের বিশেষ সম্মাননা

ঈমান মানুষের শ্রেষ্ঠ সম্পদ। শুধু মহান আল্লাহর প্রতি একচ্ছত্র বিশ্বাসই মানুষের সর্বোত্তম সম্পদ। তারপর মুহাম্মাদ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামকে সর্বশ্রেষ্ঠ ও সর্বশেষ নবি ও রাসুল হিসেবে বিশ্বাস করার নামই ঈমান।

নতুন খবর হচ্ছে, কানাডায় মুসলিম নারীদের বর্ণাঢ্য হিজাব অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়েছে। অন্টারিও রাজ্যের ওকভিল শহরের মুসলিম নারীরা হ্যাশট্যাগহিজাবিটকস ইনিশিয়েটিভ নামে বর্ণাঢ্য অনুষ্ঠানের আয়োজন করে স্থানীয় দার ফাউন্ডেশন। মূলত ৪০ তরুণী প্রথম বার হিজাব পরাকে উদযাপন করতেই এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

হিজাবি নারীদের এ অনুষ্ঠানে হিজাব শুরু করা ৪০ তরুণীকে বিশেষ সম্মাননা দেওয়া হয়। এছাড়া ইসলামী গানে অনুষ্ঠানকে প্রাণবন্ত করে তুলেন শিল্পী হামিদ মুসা। এছাড়াও জর্দানের প্রশিদ্ধ দায়ি ড. আমজাদ কারশাহ ও শায়খ আবদুল আজিজ আদ দাইবসহ বিভিন্ন আন্তর্জাতিক ব্যক্তিবর্গ তাতে উপস্থিত ছিলেন।

অনুষ্ঠানের প্রধান আয়োজক হাজির আশরাফ বলেন, অত্যন্ত আনন্দঘন সময়ে অনুষ্ঠানটি সম্পন্ন হয়েছে। তাছাড়া নতুনভাবে হিজাব পরা নারীদের উৎসাহমূলক সম্মাননা পুরস্কার দেওয়া হয়েছে। অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণকারীদের আগ্রহে হিজাব পরা নারীদের নিয়ে ধারাবাহিকভাবে এ ধরনের অনুষ্ঠান আয়োজন করবেন বলে তিনি জানান।

ইসলামী শরিয়ার নির্দেশনা অনুসারে মুসলিম নারীদের হিজাব পরা আবশ্যক। আর তাই কানাডার মতো দেশে হিজাব পরাকে গর্বের বিষয় বলে মনে করেন অনুষ্ঠানের আয়োজকরা। তাছাড়া হিজাবি নারীদের সুষ্ঠু ও নিরাপদ সমাজ গড়তে এ ধরনের আয়োজন খুবই গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে।

অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণকরে নিজের উচ্ছ্বাস প্রকাশ করে মারয়াম বলেন, ‘অনুষ্ঠানে এত মানুষ অংশ নেবে তা কারো ধারণায় ছিল না। এ ধরনের অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণের মাধ্যমে ইসলামের সৌন্দর্য প্রকাশ পায়। এ ধরনের উদ্যোগ ধারাবাহিকভাবে অনুষ্ঠিত হবে বলে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

গত আগস্টে হিজাবিটকস অনুষ্ঠানের আয়োজন শুরু হয়। কানাডায় বসবাসরত ২০ বছরের কম বয়সী মেয়েদের হিজাব পরাকে উদযাপন করতে উৎসাহমূলক এ ধরনের অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

সূত্র : আল জাজিরা