পচা মাংসে রান্না হচ্ছে ‘ভিন্ন স্বাদের’ হাজী বিরিয়ানি

সম্পদ উপার্জনের অন্যতম মাধ্যম হলো ব্যবসা-বাণিজ্য। মানবসম্প্রদায় প্রাচীন কাল থেকে বর্তমান পর্যন্ত ব্যবসা-বাণিজ্যের মাধ্যমে একে অপরের বিভিন্ন প্রয়োজন পূরণ করে আসছে। কিন্তু এ ব্যবসা-বাণিজ্যে নীতি-নৈতিকতার অভাবে সবসময় একটি শ্রেণী প্রতারিত হচ্ছে, অপরদিকে যারা অনৈতিক পন্থায় সম্পদের পাহাড় গড়ছে তারা সাময়িক সফলতা পেলেও হারাচ্ছে সম্মান ও মান-মর্যাদা।

নতুন খবর হচ্ছে, দীর্ঘদিন ধরেই নোয়াখালীর সোনাইমুড়ীতে গন্ডারের পচা মাংস দিয়ে বিরিয়ানি রান্না করতো হাজী বিরিয়ানি হাউজ। ভিন্ন স্বাদের হওয়ায় এ দোকানে ক্রেতাদেরও ভিড় থাকতো। আর এ সুযোগ কাজে লাগিয়েছেন মালিক।
অবশেষে হাজী বিরিয়ানি হাউজ থেকে ৭০ কেজি কাঁচা ও ৩০ কেজি রান্না করা গন্ডারের পচা মাংস জব্দ করেছে ভ্রাম্যমাণ আদালত। এ সময় গন্ডারের পচা মাংস দিয়ে বিরিয়ানি বিক্রির দায়ে দোকানটিকে ৩০ হাজার টাকা জরিমানা ও বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে।

শনিবার রাত ১০টার দিকে অভিযান চালিয়ে এ জরিমানা করেন সোনাইমুড়ী উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. ফজলুর রহমান।

সোনাইমুড়ী বাজারের বাসিন্দা খলিলুর রহমান বলেন, স্বাদের কারণে অনেক জনপ্রিয়তা অর্জন করে হাজী বিরিয়ানি হাউজ। কিন্তু জনপ্রিয়তার আড়ালে এমন ক্ষতিকর পচা মাংস বিক্রি করবে তা আমরা ভাবতেও পারিনি। প্রশাসনের এমন অভিযান অব্যাহত থাকলে ভোক্তাদের ঠকাতে পারবে না তারা।

সোনাইমুড়ী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. ফজলুর রহমান বলেন, দীর্ঘদিন ধরে মানুষের সঙ্গে প্রতারণা করে আসছিল সোনাইমুড়ী বাজারের হাজী বিরিয়ানি হাউজ। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে ১০০ কেজি ক্ষতিকর ও গন্ডারের পচা মাংস জব্দ করা হয়েছে। প্রতিষ্ঠানটিকে ৩০ হাজার টাকা জরিমানা ও সাময়িক বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে।