গেইলদের কোচ হলেন সারাহ টেলর, গড়লেন ইতিহাস

‘ক্রিকেট ইজ অ্যা জেন্টলম্যান’স গেইম’ বলে একটি কথা আছে। কিন্তু কোথাও লেখা দেখিনি বা শুনিনি যে ‘ক্রিকেট ইজ এ ফানি গেইম’। তবে অনেকেই মনে করে ক্রিকেট একটি মজার খেলা। আসলে মনে করাটাই স্বাভাবিক, কেননা ডব্লিউ জি গ্রেসের মতে এই আধুনিক ক্রিকেটটা আসলেই কয়েক’শ কোটি মানুষের বিনোদনের খোরাক যোগাচ্ছে।

নতুন খবর হচ্ছে, টি-টেন লিগের এবারের আসর শুরুর আগে সহাকারী হিসেবে সারাহ টেলরকে নিয়োগ দিয়েছে টিম আবুধাবি। ফ্র্যাঞ্চাইজি ক্রিকেটে এবারই প্রথম কোচ হিসেবে পুরুষ দলের সঙ্গে কাজ করার সুযোগ পেয়েছেন সাবেক এই ইংলিশ ক্রিকেটার।

ফ্র্যাঞ্চাইজি ক্রিকেটে এবার প্রথম হলেও এর আগে সাসেক্স পুরুষ দলের সঙ্গে বিশেষ কোচ হিসেবে কাজ করেছিলেন টেলর। তিনি ছাড়া পুরুষদের ফ্র্যাঞ্চাইজি ক্রিকেটে কোচিং করানোর অভিজ্ঞতা আছে কেবল জুলিয়া প্রিসের।

সাধারণ পুরুষদের ক্রিকেটে নারী কোচ খুব একটা দেখা যায় না। টেলর মনে করছেন এটা খুবই স্বাভাবিক ব্যাপার এবং সবাই সহজভাবেই নেবে। কোচিং করানোটা উপভোগ করেন বলেও জানিয়েছেন তিনি।

টেলর বলেন, ‘আমি আশা করছি সবাই এটা খুব স্বাভাবিকভাবে দেখবে। আমি প্রথমবার (ফ্র্যাঞ্চাইজি ক্রিকেটে পুরুষ দলের দায়িত্বে) কিন্তু শেষ না। কোচিং করানোটা আমার আবেগ আর পুরুষ দলের সঙ্গে কাজ করাটা আরও বেশি রোমাঞ্চকর।’

পুরুষদের সঙ্গে কাজ করতে সবসময় স্বাছন্দ্যবোধ করেন এবং চ্যালেঞ্জ নিতে পছন্দ করেন টেলর। তিনি মনে করেন নতুন পরিবেশে কাজ করাটা কোচদের জন্য চ্যালেঞ্জের।

এ প্রসঙ্গে টেইলর বলেন, ‘পুরুষদের সঙ্গে কাজ করতে কখনোই আমার কোনো সমস্যা ছিল না এবং আমি চ্যালেঞ্জ নিতে পছন্দ করি। সবাই চেষ্টা করেন নিজেকে প্রমাণ করতে তবে নতুন পরিবেশে কাজ করাটা কোচদের জন্য চ্যালেঞ্জের।’