উইকেট না পেলেও চমৎকার বোলিং করলেন তাসকিন আহমেদ

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের ইতিহাসে একটিমাত্র জয় পেয়েছিল বাংলাদেশ। সেটি ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ২০০৭ সালে। আজ বিশ্বকাপের সুপার টুয়েলভে আবার মুখোমুখি দুই দল। আগে ব্যাটিংয়ে নামা উইন্ডিজকে চেপে ধরেছে বাংলাদেশের বোলাররা। শারজার স্লো উইকেটে টাইগারদের বোলিং আক্রমণের সামনে খাবি খাচ্ছেন ক্যারিবীয় ব্যাটসম্যানরা। ১০ ওভারে উইন্ডিজের স্কোর ৩ উইকেটে ৪৮ রান।

টস জিতে ফিল্ডিংয়ে নেমে শেখ মেহেদিকে দিয়ে বোলিং উদ্বোধন করায় বাংলাদেশ। ক্রিস গেইল আর এভিন লুইস সেই ওভার থেকে তোলেন ৪ রান। পরের ওভারে আসেন তাসকিন আহমেদ। পেস-স্পিনের দ্বিমুখী আক্রমণে প্রভাব বিস্তার করে বাংলাদেশ। তৃতীয় ওভারেই আনা হয় মুস্তাফিজকে। শেষ বলে আসে সাফল্য। মুস্তাফিজের বলটি উড়িয়ে মারতে গিয়ে স্কয়ার লেগে মুশফিকুর রহিমের তালুবন্দি হন ৯ বলে ৬ রান করা এভিন লুইস। দলীয় ১২ রানে প্রথম উইকেট হারায় উইন্ডিজ।

‘ক্যারিবীয় দানব’ খ্যাত ক্রিস গেইল আজও ধুঁকছিলেন। ইনিংসের পঞ্চম ওভারের দ্বিতীয় বলে তাকে বোল্ড করে দেন শেখ মেহেদি। উড়ে যায় মিডলস্টাম্প। দলীয় ১৮ রানে নিজের নামের পাশে ১০ বলে ৪ রানের অবিশ্বাস্য স্কোর নিয়ে প্যাভিলিয়নে ফিরেন ‘দ্য ইউনিভার্স বস’। এই শেখ মেহেদিই বাংলাদেশকে তৃতীয় সাফল্য এনে দেন। মারকুটে শিমরন হেটমায়ার সদ্যই হাত খুলেছেন। ৭ম ওভারের চতুর্থ বলটি স্ট্রেইট ড্রাইভে ওড়াতে চেয়েছিলেন। কিন্তু টাইমিং না হওয়ায় সেটা সৌম্য সরকারের তালুবন্দি হয়। ৭ বলে ১ চারে ৯ রান করে ফিরেন হেটমায়ার। এর আগে অবশ্য রোস্টন চেইজের দেওয়া সহজ ক্যাচ ছাড়েন মেহেদি।

টাইগার একাদশে আজ ২টি পরিবর্তন এসেছে। ইনজুরির কারণে ছিটকে যাওয়া নুরুল হাসান সোহানের জায়গায় এসেছেন সৌম্য সরকার। অন্যদিকে স্পিনার নাসুম আহমেদের জায়গায় ফিরেছেন পেসার তাসকিন আহমেদ। ওপেনার হিসেবে টানা ব্যর্থ হওয়া লিটন দাসও একাদশে আছেন। আজ তিনি কিপিং করছেন। উইন্ডিজ একাদশেও এসেছে দুই পরিবর্তন। লেন্ডল সিমন্স ও হেইডেন ওয়ালশের জায়গায় এসেছেন রোসটন চেইজ ও জেসন হোল্ডার। এই ম্যাচ দিয়েই আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টি অভিষেক হতে যাচ্ছে চেইজের।

শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত , তাসকিন আহমেদ চালাকিতে রান আউট হয়ে প্যাভিলিয়নে ফিরে গেলেন আন্দ্রে রাসেল ওয়েস্ট ইন্ডিজ ৬২/৪, ওভার ১২.৪।