নেই মেসি-নেইমার, পিএসজিকে একাই জেতালেন এমবাপ্পে

নিঃসন্দেহে ফুটবল বিশ্বের সবচেয়ে জনপ্রিয় খেলা। ৯০ মিনিটের এই খেলায় খেলোয়াড় এবং দর্শকদের মধ্যে বেশ উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। আর খেলা মানেই রেকর্ড ভাঙ্গার প্রতিযোগিতা। একজন খেলোয়াড়ের রেকর্ড আরেক খেলোয়াড় ভেঙ্গে দিয়ে নতুন রেকর্ড গড়বে, সৃষ্টি করবে নতুন এক ইতিহাস।

নতুন খবর হচ্ছে, গতকাল সকালেই ২০২২ কাতার বিশ্বকাপ বাছাইপর্বের ম্যাচ ছিল আর্জেন্টিনা এবং ব্রাজিলের। এজন্য পিএসজির জার্সিতে অ্যাঞ্জার্সের বিপক্ষে মাঠে নামা হয়নি দুই তারকা খেলোয়াড় লিওনেল মেসি ও নেইমার জুনিয়রের। অবশ্য এই দুজনের অভাব টের পেতে দেননি এমবাপ্পে। নিজে এক গোল করার পাশাপাশি সতীর্থকে দিয়ে করিয়েছেন আরও একটি।

বর্তমানে পিএসজিতে থাকলেও এমবাপ্পে জানিয়েছেন তিনি রিয়াল মাদ্রিদের হয়ে খেলতে চান। এরপরও তাকে ধরে রাখতে মরিয়া প্যারিসের ক্লাবটি। একা ম্যাচ জিতিয়ে ২২ বছর বয়সী ফুটবলার আরও একবার প্রমাণ করলেন, কেন তাকে নিয়ে এত আগ্রহ ২০১৯-২০ মৌসুমে উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লিগের রানার্সআপদের।

এই ম্যাচটার বিশেষ গুরুত্ব ছিল পিএসজির কাছে। কারণ আন্তর্জাতিক বিরতিতে যাওয়ার আগে রেনেসের কাছে ২-০ গোলে হেরেছিল তারা। নিজেদের আধিপত্য ধরে রাখতে ঘুরে দাঁড়ানোর বিকল্প ছিল না মাওরিসিও পচেত্তিনোর শিষ্যদের সামনে। মেসি-নেইমার জুটিকে ছাড়া সে চ্যালেঞ্জ উতরে যাওয়ায় বাড়তি আত্মবিশ্বাস যোগ হয়েছে লিগ লিগ ওয়ান জায়ান্ট শিবিরে।

নিজেদের মাঠে বল দখল কিংবা আক্রমণে একচেটিয়াভাবে এগিয়ে ছিল পিএসজি। তাদের দাপটের কাছে পুরো ম্যাচে অসহায় ছিল তুলনামূলক কম শক্তির দলটি। ভালো ফিনিশিংয়ের অভাবে ব্যবধান বাড়িয়ে নিতে পারেনি দুই নম্বরে থেকে লিগ ওয়ানের গত আসর শেষ করো দলটি।

ম্যাচের ৩৬ মিনিটে অ্যাঞ্জোলো ফালগিনি অ্যাঞ্জার্সকে এগিয়ে নেন। ৬৯ মিনিটে এমবাপ্পের সহায়তায় পিএসজিকে সমতায় ফেরান দানিলো পেরেরা। নির্ধারিত সময়ের তিন মিনিট আগে স্পট কিক থেকে গোল করে স্বাগতিকদের জয় নিশ্চিত করেন ২০১৮ রাশিয়া বিশ্বকাপের সেরা উদীয়মান খেলোয়াড়।