পাকিস্তান ক্রিকেটারদের দায়িত্ব নিচ্ছেন ভারতকে বিশ্বকাপ জেতানো কোচ

আইসিসি টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ শুরুর ঠিক আগে পাকিস্তান দলের প্রধান কোচের দায়িত্ব ছাড়েন মিসবাহ উল হক। এমন সংকটময় পরিস্থিতিতে সাকলায়েন মুশতাককে অন্তর্বর্তীকালীন হেড কোচ হিসেবে নিয়োগ দেয় পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড (পিসিবি)।

এদিকে সাকলাইনের অধীনে পাকিস্তান এবারের বিশ্বকাপে এখন পর্যন্ত দুর্দান্তই খেলছে। প্রথমবারের মতো বিশ্বকাপে হারিয়েছে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ভারতকে, সেটাও আবার ১০ উইকেটের বড় ব্যবধানে। সাকলাইন সফল হলে তাকে স্থায়ী কোচ করার একটা দাবি উঠতেই পারে। তবে ক্রিকেট বিষয়ক ওয়েবসাইট ‘ক্রিকট্রেকার’-এর খবর, পাকিস্তানের হেড কোচ হিসেবে নিয়োগ পাওয়ার জোর সম্ভাবনা আছে গ্যারি কারস্টেনের।

কারস্টেন ছাড়াও সায়মন ক্যাটিচ ও পিটার মুরসকেও বিবেচনা করা হচ্ছে এই পদে। কারণ পিসিবির নতুন চেয়ারম্যান রমিজ রাজার নাকি পছন্দ বিদেশি কোচই! কোচ হিসেবে বেশ সাফল্য আছে কারস্টেনের। ২০০৮ থেকে ২০১১ পর্যন্ত ভারতীয় দলের কোচ হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন। তার অধীনেই ২০১১ সালে ২৮ বছর পর বিশ্বকাপ জয়ের স্বাদ নেয় ভারত।

এদিকে গত ১৯৯৩ থেকে ২০০৪, ১১ বছরের আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ারে ১০১ টেস্ট ও ১৮৫ ওয়ানডে ম্যাচ খেলেছেন প্রোটিয়া এই কিংবদন্তি ব্যাটার। টেস্টে ৪৫.২৭ গড়ে ৭২৮৯ আর ওয়ানডেতে ৪০.৯৫ গড়ে তার নামের পাশে ৬৭৯৮ রান।