পুরো গ্রামের বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্ন করে প্রেমিকার সঙ্গে দেখা করেন প্রেমিক

কাউকে ভালোবাসা আর কারো প্রতি প্রেমে পড়া আসলে এক বিষয় নয়। কাউকে ভালবাসা এবং কারো সঙ্গে সম্পর্কে জড়িয়ে পড়া একই রকম অনুভূতি কিন্তু তার মধ্যে কিছু গুরুত্বপূর্ণ এবং মূল্যবান পার্থক্য রয়েছে।

নতুন খবর হচ্ছে, পুরো গ্রামের বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্ন করে প্রেমিকার সঙ্গে দেখা করতে আসতেন এক ইলেকট্রিশিয়ান। প্রেমিকার সঙ্গে সাক্ষাতের জন্যই গ্রামের বিদ্যুৎ বন্ধ রাখতেন তিনি।

এ ঘটনা জানাজানির পর ওই ইলেকট্রিশিয়ানকে মারধর করেছে গ্রামবাসী। সেই সঙ্গে প্রেমিকার সঙ্গে তার বিয়েও পড়িয়ে দেওয়া হয়েছে।

সম্প্রতি ভারতের বিহার রাজ্যের পুর্নিয়া জেলার গণেশপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটেছে বলে দুবাইভিত্তিক সংবাদমাধ্যম গালফ নিউজের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে।

খবরে বলা হয়, ওই গ্রামে প্রতিদিন সন্ধ্যায় একটি নির্দিষ্ট সময়ে দুই থেকে তিন ঘণ্টা বিদ্যুৎ থাকত না। এতে গ্রামটি পুরোপুরি অন্ধকারে ডুবে যেত। ঘন ঘন বিদ্যুৎ যাওয়া নিয়ে সন্দেহ হলে গ্রামবাসীর দাবির মুখে এ নিয়ে তদন্ত শুরু হয়।

ওই তদন্তে বেরিয়ে আসে, প্রেমিকার সঙ্গে সাক্ষাতের জন্যই বিদ্যুৎ বন্ধ রাখতেন এক ইলেকট্রিশিয়ান। এই সুযোগেই গ্রামটিতে প্রেমিকার সঙ্গে দেখা করতে যেতেন তিনি।

এ ঘটনা জানাজানি হওয়ার পর গ্রামবাসী ওই ইলেক্ট্রিশিয়ানকে হাতেনাতে ধরার জন্য ফাঁদ পাতে। একদিন বিদ্যুৎ যাওয়ার পর গণেশপুর গ্রামের একটি সরকারি স্কুলে প্রেমিক-প্রেমিকাকে দেখতে পায় গ্রামবাসী। পরে ওই ইলেকট্রিশিয়ানকে মারধর করে তার প্রেমিকার সঙ্গে বিয়ে পড়িয়ে দেওয়া হয়।