বাংলাদেশ নয়, চাপে রয়েছে নেপাল

নিঃসন্দেহে ফুটবল বিশ্বের সবচেয়ে জনপ্রিয় খেলা। ৯০ মিনিটের এই খেলায় খেলোয়াড় এবং দর্শকদের মধ্যে বেশ উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। আর খেলা মানেই রেকর্ড ভাঙ্গার প্রতিযোগিতা। একজন খেলোয়াড়ের রেকর্ড আরেক খেলোয়াড় ভেঙ্গে দিয়ে নতুন রেকর্ড গড়বে, সৃষ্টি করবে নতুন এক ইতিহাস।

নতুন খবর হচ্ছে, ফাইনালে খেলতে হলে নেপালকে হারানোর কোনো বিকল্প নেই বাংলাদেশের। জিততেই হবে। সে তুলনায় কিছুটা ভালো অবস্থানে রয়েছে নেপাল। ড্র করতে পারলেই নিজেদের ইতিহাসে প্রথমবারের মতো সাফ চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনাল খেলতে পারবে দলটি। কিন্তু তারপরও বাংলাদেশ নয়, চাপ নেপালই রয়েছে বলে মনে করেন বাংলাদেশ দলের ফরোয়ার্ড রাকিব হাসান।

মালেতে আগামীকাল বুধবার নিজেদের শেষ ম্যাচে মুখোমুখি হবে নেপাল ও বাংলাদেশ। একই দিনে স্বাগতিক মালদ্বীপের মোকাবেলা করবে ভারত। এ দুটি ম্যাচ শেষেই জানা যাবে ১৬ অক্টোবর ফাইনালে খেলবে কোন দুটি দল।

তিন ম্যাচে দুটি করে জয়ে ৬ পয়েন্ট নিয়ে অনেকটাই মজবুত অবস্থানে আছে নেপাল ও মালদ্বীপ। তবে গোল ব্যবধানে শীর্ষে আছে মালদ্বীপ। এক পয়েন্ট কম নিয়ে তৃতীয় স্থানে আছে ভারত। বাংলাদেশের সংগ্রহ ৩ ম্যাচে ৪ পয়েন্ট। শেষ ম্যাচে জিতলে ৭ পয়েন্ট নিয়ে ফাইনালের টিকেট মিলবে দলটির।

সাম্প্রতিক সময়ে দারুণ ফুটবল খেলতে থাকা নেপালের বিপক্ষে কাজটা মোটেও সহজ হবে না লাল-সবুজ জার্সিধারীদের। চাপে থাকাটাই স্বাভাবিক তাদের। কিন্তু রাকিব বলছেন ভিন্ন কথা, ‘আমরা কোনো চাপে নেই। সে তুলনায় নেপালই চাপে রয়েছে। কারণ তাদের ফাইনালে যেতে ড্র করতে হবে যেখানে আমাদের চাই সরাসরি জয়। আমরা জয়ের জন্য খেলব।’

এ আসরে এবার পাঁচ দিনে তিনটি ম্যাচ খেলেছে বাংলাদেশ। যে কারণে ক্লান্তির কারণে মালদ্বীপের বিপক্ষে আশানুরূপ পারফরম্যান্স করতে পারেনি দলটি। তবে পাঁচ দিনের বিশ্রামে অনেকটাই ফুরফুরে তারা। নেপেলের বিপক্ষে সেরাটা দেওয়ার প্রত্যয় ঝরে রাকিবের কণ্ঠে, ‘ক্লান্তির কারণে আমরা মালদ্বীপের সঙ্গে ভালো খেলতে পারিনি। তবে ফাইনালে জায়গা করে নিতে নেপালের বিপক্ষে নিজেদের সেরাটা দিতে সবাই মুখিয়ে আছে।’