বিরামপুরে হতদরিদ্র ক্ষুধার্ত মানুষের জন্য বিনা পয়সার হোটেল

মানুষ মানুষের জন্যে।জীবন জীবনের জন্যে। একটু সহানুভূতি কি। মানুষ পেতে পারে না; ও বন্ধু’। গানের কথা গুলি কবে বাস্তবে রপান্ত্রিত হবে সেই আশায় বুক বাঁধে হাজারো মানুষ।

নতুন খবর হচ্ছে, ক্ষুধার্ত পথচারী ও হতদরিদ্র মানুষকে ডেকে খাবার খাওয়ান দিনাজপুরের বিরামপুরের হাজী হোটেলের মালিক বেলাল মল্লিক। প্রতি বৃহস্পতিবার প্রায় ২০০ অসহায় ক্ষুধার্ত মানুষকে খাবার খাওয়ান তিনি। ব্যবসার পাশাপাশি অনাহারি মানুষের মুখে খাবার তুলে দিয়ে শান্তি খুঁজে পান। প্রায় ৫ বছর ধরে তিনি এই মানবিক কাজটি করছেন।

বিরামপুর পল্লবী মোড়ের হাজী হোটেলে গিয়ে দেখা যায়, ক্ষুধার্তরা দুই একজন করে অন্যান্য ক্রেতাদের সঙ্গে বসে বিনা পয়সায় খাচ্ছেন। এছাড়াও প্রতি বৃহস্পতিবার দুপুর সাড়ে ১২টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত প্রায় ২০০ জন অসহায় মানুষকে খাবার খাওয়ান হোটেল মালিক। পরম যত্ন সহকারে তাদের খাবার পরিবেশন করেন হোটেল কর্মচারীরা। আবার এসময় ভাত-তরকারি নিজ হাতে তুলে খাওয়ান বেলাল মল্লিক।

খাবারের তালিকায় থাকে সাদা ভাত, গরুর মাংস, মুরগির মাংস, ছোট মাছ, সবজি, ডাল এবং মাঝেমধ্যে খিচুড়িও থাকে। বৃহস্পতিবার ছাড়াও যে কোনো সময় কোনো ক্ষুধার্ত মানুষ তার হোটেলের সামনে দাঁড়ালে সবার আগে তাকে ডেকে পেট ভরে খাবার খাওয়ায়ে দেওয়া হয়। পাশাপাশি হোটেল কর্মচারীরাও সযত্নে এসব ক্ষুধার্তদের সেবা করেন।