ম্যাচ জয়ের পুরো কৃতিত্ব মেহেদিকে দিলেন সাকিব-তামিম

আইসিসি টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের প্রথম পর্বে ওমানের বিপক্ষে গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচ হয়ে বল হাতে অসাধারণ অবদান রেখেছেন মেহেদি হাসান। তরুণ এই অলরাউন্ডারকে কৃতিত্ব দিয়েছেন সাকিব আল হাসান ও তামিম ইকবাল। গত ম্যাচের গুরুত্বপূর্ণ সময়ে ব্যাট হাতে ২৯ বলে ৪২ রান ও বল হাতে ২৮ রান খরচায় তিন উইকেট নেন সাকিব। স্নায়ুর চাপ নিয়ন্ত্রণ করে ওমানকে ধসিয়ে দিয়ে ম্যাচসেরাও হয়েছেন তিনি। সেই সাকিবের নজর কেড়ে নিলেন মেহেদি।

ম্যাচ শেষে সাকিব বলেন, ‘আমার মনে হয় সাইফউদ্দিন এবং মেহেদি দুজনই বেশ ভালো বোলিং করেছে। ওরাই আজকে আমাদের ম্যাচের টার্নিং পয়েন্ট বলতে পারেন। দুজনই যেভাবে বোলিং করেছে। দুজনের আট ওভারে, সম্ভবত ৩০ রানও হয়নি। যেখানে আমরা অনেক এগিয়ে ছিলাম (রান খরচের দিক থেকে)। তারা যেভাবে বোলিং করেছে, তাদের কৃতিত্ব দিতেই হয়।’

এদিকে মেহেদির উচ্ছ্বসিত প্রশংসা করেন তামিম ইকবাল। বাংলাদেশের ওয়ানডে অধিনায়কের চোখে মেহেদিই এই ম্যাচের ‘ম্যাচ সেরা’! তামিম বলেন, ‘আজকে আমরা সবাই সাকিব আর মুস্তাফিজকে নিয়েই কথা বলব। কিন্তু আমার কাছে এই পুরো ম্যাচের ম্যান অব দ্য ম্যাচ মেহেদি হাসান। পুরো বাংলাদেশকে যদি কেউ খেলায় ফিরিয়ে আনে সেটা একমাত্র মেহেদিই। ম্যাচে ছোটো ছোটো যে অর্জনগুলো কারও থাকে, সেটা নিয়ে আমরা খুব কম কথা বলি।’

তিনি আরও বলেন, ‘চার উইকেট মুস্তাফিজ পেয়েছে। অসাধারণ বোলিং করেছে। সাকিব ব্যাটিং এবং বোলিং দারুণ করেছে। সবাই দেখবেন এটা নিয়েই থাকবে। কিন্তু আজকের ম্যাচ মেহেদি হাসান ঘুরিয়েছে।’

এদিন ম্যাচের গুরুত্বপূর্ণ সময়ে বোলিং করতে এসে চার ওভারে ১৪ রান খরচায় এক উইকেট তুলে নিয়েছেন মেহেদি। দিয়েছেন ১২টি ডট বল। মেহেদিকে চার অথবা ছয় হাঁকাতে পারেনি ওমানের কোনো ব্যাটসম্যান। তামিম বলেন, ‘মেহেদি বোলিংয়ে আসার আগের ওভারেই অনেক রান হয়েছে। চার ওভারে সে খুব সম্ভব ১৪ রান দিয়েছে। এমন পরিস্থিতিতে চার ওভারে ১৪ রান দেয়া অনেক বড় ব্যাপার। আমার জন্যে সে-ই ম্যান অব দ্য ম্যাচ।’