শীর্ষে আফ্রিদি, ব্রাভোর সাথে সাকিবের লড়াই

বাংলাদেশের ক্রিকেটকে আজকের এই উচ্চ পর্যায়ে নিয়ে আসতে যে কয়জন ক্রিকেটার সামনে থেকে নেতৃত্ব দিয়েছেন তাঁর মধ্যে সাকিব অন্যতম। এই পর্যন্ত অনেক রেকর্ড নিজেদের করে নিয়েছেন এই তারকা ক্রিকেটার।

নতুন খবর হচ্ছে, আইসিসি টি-টোয়েন্টি ক্রিকেট বিশ্বকাপে সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহকের তালিকায় দ্বাদশ স্থানে আছেন বাংলাদেশের সাকিব আল হাসান। ব্যাটসম্যান সাকিব তালিকায় কিছুটা পিছিয়ে থাকলেও বোলার ভূমিকায় অনেকটাই এগিয়ে। কুড়ি ওভারের বিশ্বমঞ্চে সর্বোচ্চ শিকারিদের তালিকায় সাতে আছেন তিনি।

বাংলাদেশি অলরাউন্ডারের চেয়ে বেশি উইকেট নেওয়া ছয়জনই সাবেক হয়েছেন। আসন্ন ক্রিকেট মহোৎসবটা তাই সাকিবের জন্য বিশ্বরেকর্ড গড়ার উপলক্ষ্য। কারণ সাকিব ছাড়া শীর্ষে থাকা শহিদ আফ্রিদির ধারেকাছেও নেই বর্তমান কোনো বোলার। ৩৪ মাচে ৩৯ উইকেট নিয়ে বিশ্বকাপে শিকারিদের নেতৃত্ব দিচ্ছেন আফ্রিদি।

কিংবদন্তি এই অলরাউন্ডারের পেছনে আছেন লাসিথ মালিঙ্গা, সাঈদ আজমল, অজান্তা মেন্ডিস, উমর গুল ও ডেল স্টেইন। ৩১ ম্যাচে ৩৮ উইকেট নিয়ে বিশ্বকাপ অধ্যায় শেষ করেছেন লঙ্কান পেসার মালিঙ্গা। ২৩ ম্যাচে ৩৬ উইকেট নিয়ে তিনে আছেন আজমল। চার ও পাঁচে থাকা মেন্ডিস এবং গুল দুজনেরই উইকেট সমান ৩৫টি। মেন্ডিস ২১টি ম্যাচ খেলেছেন। তিনটি বেশি গুল।

ছয়, সাত এবং আট নম্বরে থাকা তিনজনেরই উইকেট আবার সমান ৩০টি। পার্থক্যটা কেবল ম্যাচ সংখ্যায়। দক্ষিণ আফ্রিকার পেস ব্যাটারি ডেল স্টেইন ম্যাচ খেলেছেন ২৩টি। দুটি বেশি সাকিব। আটে থাকা ইংলিশ পেসার স্টুয়ার্ট ব্রড বিশ্বকাপে ২৬টি ম্যাচ খেলেছেন। ব্রডের পরই আছেন ওয়েস্ট ইন্ডিজের দুই ক্রিকেটার ডোয়াইন ব্রাভো (২৫) ও স্যামুয়েল বদ্রি (২৪)। ব্রাভোর ম্যাচ ২৯টি এবং বদ্রির ১৫টি।