সমালোচনা আমাদের কাম্য , তবে গঠনমূলক হওয়া জরুরী : সোহান

বাংলাদেশের ক্রিকেটকে আজকের এই উচ্চ পর্যায়ে নিয়ে আসতে যে কয়জন ক্রিকেটার সামনে থেকে নেতৃত্ব দিয়েছেন তাঁর মধ্যে সোহান অন্যতম। এই পর্যন্ত অনেক রেকর্ড নিজেদের করে নিয়েছেন এই তারকা ক্রিকেটার।

নতুন খবর হচ্ছে, ক্রিকেটারদের পারফরম্যান্স নিয়ে আলোচনা আর সমালোচনায় সয়লাব সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম। ঘর থেকে দুই পা ফেলে কোনো চায়ের দোকানে বা রেস্তোরাঁয় বসে কান পাতলেও শোনা যাবে ক্রিকেট দলের পারফরম্যান্স নিয়ে কাঁটাছেঁড়া। এসব সমালোচনায় কোনো আপত্তি নেই নুরুল হাসান সোহানের, তবে প্রত্যাশা করলেন গঠনমূলক সমালোচনার।

স্কটল্যান্ড, শ্রীলঙ্কা ও ইংল্যান্ডের কাছে হেরে বাংলাদেশের বিশ্বকাপ যাত্রা হয়ে উঠেছে কঠিন। ইংল্যান্ডের বিপক্ষে টাইগাররা কোনো প্রতিরোধই গড়তে পারেনি। স্কটল্যান্ড ও শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে জয়ের আশা জাগিয়ে হারায় আফসোস হচ্ছে আরও বেশি।

সেই আফসোস থেকেই ক্ষুব্ধ সমর্থকদের বড় একটি অংশ ঢালাওভাবে সমালোচনা করছেন দলের। একইসাথে সংবাদ সম্মেলনে ক্রিকেটারদের কাঠখোট্টা কথাবার্তা নিয়েও চলছে আলোচনা।

ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে মাঠে নামার আগে উইকেটরক্ষক ব্যাটার সোহান জানালেন, সমালোচনা দলে কোনো প্রভাব ফেলছে না। কারণ, এসবের সাথে অভ্যস্ত টাইগাররা।

সোহান বলেন, ‘না, এই জিনিসটা কিন্তু নতুন কিছু না। আমরা যখন খারাপ করি তখন আমাদের সমালোচনা সবসময়ই হয়। সমালোচনা আমাদের কাম্য। তবে আমার মনে হয় গঠনমূলক সমালোচনা হওয়া জরুরী।’