আবারো বাড়লো বঙ্গবন্ধু সেতুর টোল

এবার বঙ্গবন্ধু সেতুতে দ্বিতীয় দফায় বেড়েছে যানবাহনের টোল আদায়। ১৯৯৮ সালে সেতুটি চালু হওয়ার পর ২০১১ সালে একবার টোল আদায় বৃদ্ধি করা হয়। গত মঙ্গলবার (২ নভেম্বর) বঙ্গবন্ধু সেতুতে টোল আদায় বৃদ্ধি নিয়ে সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়ের উপসচিব (উন্নয়ন) মোহাম্মদ আনোয়ারুল নাসের স্বাক্ষরিত এক প্রজ্ঞাপনে এ তথ্য জানানো হয়।

এদিকে প্রজ্ঞাপন জারি হলেও গতকাল বুধবার ৩ (নভেম্বর) বঙ্গবন্ধু সেতুতে পারাপার হওয়া যানবাহন থেকে পূর্বে ধার্যকৃত টোল আদায় করছে কর্তৃপক্ষ। তবে প্রজ্ঞাপন জারির দিন থেকেই চালকদের অবহিত করতে তাদের হাতে টোল বৃদ্ধি সংক্রান্ত প্রজ্ঞাপন ধরিয়ে দিয়েছেন বঙ্গবন্ধু সেতু কর্তৃপক্ষ।

প্রজ্ঞাপনে বলা হয়, সেতু বিভাগের আওতাধীন বঙ্গবন্ধু সেতুর জন্য অনুমোদিত যানবাহনের শ্রেণিবিন্যাস করে টোল ধরা হয়েছে। এরমধ্যে মোটরসাইকেল ৫০ টাকা, হাল্কা যানবাহনের মধ্যে কার-জিপ ৫৫০ টাকা, মাইক্রো ও পিকআপ ৬০০ টাকা, ছোট বাস (৩১ আসন বা এর কম) ৭৫০ টাকা, বড় বাস (৩২ আসন বা এর বেশি) ১০০০ টাকা, ছোট ট্রাক (৫ টন) ১০০০ টাকা, মাঝারি ট্রাক (৫ টন থেকে ৮ টন) ১২৫০ টাকা, মাঝারি ট্রাক (৮ টন থেকে ১১ টন) ১৬০০ টাকা টাকা, ট্রাক (৩ এক্সেল) ২০০০ টাকা, ট্রেইলার (৪ এক্সেল) ৩০০০ টাকা, ট্রেইলার (৪ এক্সেলের অধিক) ৪০০০ টাকা এবং সেতুর ওপর দিয়ে ট্রেন চলাচলের জন্য প্রতিবছর এক কোটি টাকা টোল আদায় করা হবে।

এর আগে গত ২০১১ সালে বঙ্গবন্ধু সেতুতে টোল বৃদ্ধি করা হয়েছিল। টোল বেড়ে মোটরসাইকেলে ৪০ টাকা, হালকা যানবাহন (কার-জীপ) ৫০০ টাকা, ছোট বাস ৬৫০ টাকা, বড় বাস ৯০০ টাকা, ছোট ট্রাক ৮৫০ টাকা, মাঝারি ট্রাক ১১০০ টাকা, বড় ট্রাক ১২৫০-১৪০০ টাকা করে আদায় করা হয়েছিল।

এ ব্যাপারে বঙ্গবন্ধু সেতু কর্তৃপক্ষ সূত্র জানায়, টোল আদায় বৃদ্ধি সংক্রান্ত প্রজ্ঞাপন জারি হওয়ার পর মঙ্গলবার রাত থেকে সেতু পারাপার যানবাহনের চালকদের অবহিত করতে একটি লিফলেট দেওয়া হচ্ছে। তবে এখন পর্যন্ত বাড়তি ভাড়া আদায় করা হচ্ছে না।

এ বিষয়ে বঙ্গবন্ধু সেতু সাইট কার্যালয়ের নির্বাহী প্রকৌশলী আহসানুল কবির পাভেল বলেন, টোল বৃদ্ধির প্রজ্ঞাপন জারি হয়েছে। দ্রুত নতুন রেটে সেতুতে টোল আদায় শুরু হবে। টোল বৃদ্ধির প্রজ্ঞাপন চালকদের হাতে ধরিয়ে দেওয়া হচ্ছে। এছাড়াও ব্যাপক প্রচারের জন্য সেতু কর্তৃপক্ষ আলাদাভাবে এ সংক্রান্ত লিফলেট ছাপানোর উদ্যোগ নিয়েছে।