খুলনা থেকে বাড়ল সব রুটের বাস ভাড়া

ডিজেল ও কেরোসিনের দাম বৃদ্ধির সঙ্গে ভাড়া সমন্বয় না হওয়া পর্যন্ত শুক্রবার থেকে বাসও চলবে না বলে জানিয়েছে সড়ক প‌রিবহন মালিক স‌মিতি।

নতুন খবর হচ্ছে, খুলনায় পূর্ব কোনো নোটিশ বা ঘোষণা ছাড়াই সব যাত্রীবাহী পরিবহনের ভাড়া বাড়িয়ে দিয়েছেন বাস মালিকরা। হঠাৎ এ সিদ্ধান্তে বেকায়দায় পড়েছেন সাধারণ যাত্রীরা।

আজ বৃহস্পতিবার সকাল থেকে গণপরিবহনগুলোর ভাড়া বাড়ানো হয়েছে।

খুলনার সোনাডাঙ্গা থেকে মোংলা ও বাগেরহাট রুটে যাত্রী প্রতি পরিবহনের ভাড়া ছিল ৬০ টাকা। আজ সকাল থেকে তা বাড়িয়ে করা হয়েছে ৮০ টাকা। এছাড়া খুলনা–কুষ্টিয়া রুটে ভাড়া ছিল ৩৫০ টাকা। এটা বেড়ে হয়েছে ৪২০ টাকা। খুলনা–যশোর রুটে ভাড়া ছিল ১০০ টাকা। আজ নেওয়া হচ্ছে ১৩০ টাকা।

বেসরকারি ব্যাংকের কর্মী শিপ্রা ভৌমিক যশোর থেকে আজ দুপুরে খুলনা এসে পৌঁছেছেন। তিনি দ্য ডেইলি স্টারকে বলেন, ‘যশোর থেকে খুলনায় আসি ৯০ থেকে ১০০ টাকা ভাড়া দিয়ে। আজ ১৩০ টাকা ভাড়া দাবি করছে।’

ক্ষোভ জানিয়ে তিনি বলেন, ‘হঠাৎ বাস ভাড়া বাড়ানো ঠিক হয়নি। আগে ঘোষণা দিলে ভালো হতো।’

খুলনা-মংলা রুটে নিয়মিত চলাচল করেন কলেজ শিক্ষক ধ্রুব শংকর রায়। তিনি বলেন, ‘কাউন্টারে গিয়ে দেখি বাস ভাড়া ২০ টাকা বেড়ে গেছে। গতকাল খুলনায় এসেছি ৬০ টাকা দিয়ে। আজ যেতে হবে ৮০ টাকা দিয়ে।’

সরেজমিনে সোনাডাঙ্গা বাসস্ট্যান্ডে গিয়ে দেখা যায়, প্রায় প্রতিটি পরিবহনের কাউন্টারে যাত্রীরা বাকবিতণ্ডা করছেন। অতিরিক্ত ভাড়া দিতে তারা রাজি হচ্ছেন না।

সূত্র জানায়, সোনাডাঙ্গা বাসস্ট্যান্ড থেকে মোট ৫২টি রুটে বাস চলাচল করে।

জানতে চাইলে খুলনা জেলা বাস-মিনিবাস-কোচ মালিক সমিতির যুগ্ম-সম্পাদক আনোয়ার হোসেন বলেন, ‘আমরা আনুষ্ঠানিকভাবে কোনো রুটের বাস ভাড়া বাড়াইনি। তবে মালিকের অনুমতি সাপেক্ষে হয়তো বাস শ্রমিকরা বেশি ভাড়া আদায় করছেন।’