জয় পেলেও কঠিন সমীকরণে ভারতের সেমিফাইনাল খেলার স্বপ্ন

চলতি টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের প্রথম ম্যাচে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী পাকিস্তানের বিপক্ষে পরাজয়ে মিশন শুরু ভারতের। নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষেও স্রেফ উড়ে যায় কোহলিরা। পাকিস্তানের বিপক্ষে ১৫১/৭ রানে ইনিংস গুটানো ভারত হেরে যায় ১০ উইকেটের বিশাল ব্যবধানে। আর দ্বিতীয় ম্যাচে কিউইদের বিপক্ষে ১১০/৭ রানে থেমে যাওয়া ভারত ম্যাচ হারে ৮ উইকেটে।

এমন দুই হারের পর ভারতের বিশ্বকাপের সেমিফাইনালের আশা কার্যত শেষ। পয়েন্ট টেবিলে নবাগত নামিবিয়ার নিচে অবস্থান হয় বিরাট কোহলি এন্ড কোংয়ের। গতকাল বুধবারের ম্যাচের আগ পর্যন্ত যে সমীকরণের সামনে দাঁড়িয়েছিল ভারত তাহলো – নিজেদের শেষ তিন ম্যাচে আফগানিস্তান, স্কটল্যান্ড ও নামিবিয়ার বিপক্ষে বড় ব্যবধানে জয়ের পাশাপাশি তাকিয়ে থাকতে হবে আফগানিস্তান বনাম নিউজিল্যান্ড ম্যাচের দিকেও। সেই ম্যাচে আফগানিস্তান যদি নিউজিল্যান্ডকে হারিয়ে দেয় তাহলে ভারতের সেমিফাইনালে যাওয়ার সম্ভাবনা তৈরি হবে।

গতকাল বুধবার সমীকরণের প্রথম ধাপ পূর্ণভাবেই পালন করল ভারত। আফগানিস্তানের বিরুদ্ধে জয়ের ফলে এবারের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে প্রথম পয়েন্ট পেল তারা। সেইসঙ্গে ৬৬ রানের ব্যবধানে জয়ের ফলে নেট রানরেটও অনেকটা ভালো হয়েছে।

সেই জয়ের ফলে ভারতে সেমিফাইনালে ওঠার সুযোগ কতটা বাড়ল, তা দেখে নিন- আফগানিস্তানের বিপক্ষে জয়ের পরও ‘গ্রুপ ২’-তে চতুর্থ স্থানে আছে ভারত। তাদের নেট রানরেট +০.০৭৩। হেরেও দ্বিতীয়স্থানে অটল আফগানিস্তান। রশিদ খানদের নেট রানরেট +১.৪৮১। ওদিকে আজ স্কটল্যান্ডকে হারিয়ে তৃতীয় অবস্থান মজবুত করেছে নিউজিল্যান্ড।

আফগানিস্তান ও নিউজিল্যান্ড দুই দলেরই সমান পয়েন্ট ৪ হলেও নেট রানরেটে পিছিয়ে কিউইরা, +০.৮১৬। ফলে নিউজিল্যান্ড যদি নিজেদের বাকি দুটি ম্যাচ (নামিবিয়া এবং আফগানিস্তান) জিতে যায়, তাহলে তাদের পয়েন্ট হবে ৮। এমনটি ঘটলে ভারত তার বাকি দুই ম্যাচ জিতে গেলেও লাভ নেই। কারণ তখন ভারতের পয়েন্ট হবে ৬। মানে বিদায় ঘণ্টা বাজবেই ভারতের।

সেক্ষেত্রে বিরাট কোহলির প্রার্থনা করতে হবে আফগানিস্তান বা নামিবিয়ার কাছে যেন নিউজিল্যান্ড হেরে যায়। সেক্ষেত্রে কিউইদের পয়েন্ট হবে ৬। ভারতও ৬ পয়েন্টে (নামিবিয়া এবং স্কটল্যান্ডের বিরুদ্ধে জিতবে ধরে নিয়ে) থাকবে। সেক্ষেত্রে নেট রানরেটের একটা ব্যাপার ভারতের পক্ষে কাজ করবে (যদি বাকি দুই ম্যাচেও বিশাল ব্যবধানে জেতে ভারত)।

আবার আফগানিস্তান যদি নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে জিতে যায়, তাহলে রশিদ খানদের পাঁচ ম্যাচে ৬ পয়েন্ট হবে। সেক্ষেত্রে নেট রানরেট অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ব্যাপার হয়ে দাঁড়াবে। সেই পরিস্থিতিতে বুধবার আফগানিস্তানের বিপক্ষে ৬৬ রানের জয়ে ভারতের তেমন যে খুব একটা লাভ হল, সেটাও নয়। তবে এই জয়ে সেমিফাইনালে আশা বেঁচে থাকল ভারতের। সেইসঙ্গে নেট রানরেট বাড়িয়ে নেওয়া হলো। যা ভারতের সেমিফাইনালে যাওয়ার ক্ষেত্রে একটা বড় ফ্যাক্টর হতে চলেছে।