দুঃসময়ে রিয়াদকে পাশে পেলেন ডমিঙ্গো

চলতি টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে বাংলাদেশের অপ্রত্যাশিত পারফরম্যান্সে কাঠগড়ায় জাতীয় দলের কোচ রাসেল ডমিঙ্গো। ডমিঙ্গোর কোচিংয়ে সুফল পাচ্ছে না দল, এমন অভিযোগ তুলছেন অনেকেই। এই কঠিন সময়ে দক্ষিণ আফ্রিকান এই কোচের পাশে দাঁড়াচ্ছেন অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। ডমিঙ্গোর কোচিং দর্শন ও কৌশল অতীতের সফল কোচদের চেয়ে আলাদা, মনে করেন রিয়াদ।

এদিকে জেমি সিডন্স বা চন্ডিকা হাথুরুর মত কোচদের অধীনে বেশ সফল ছিল বাংলাদেশ। তবে তারা ছিলেন একটু রাগী কোচ, ক্ষেত্রবিশেষে জেদিও।

বাংলাদেশ দলের জন্য এমন কঠোর কোচের প্রয়োজন কি না, এমন প্রশ্নের জবাবে রিয়াদ বলেন, ‘প্রত্যেক কোচেরই ভিন্ন দর্শন থাকে। এটা আমি বলতে পারব না, ওদের বিষয়। হাথুরুসিংহের সময় হয়ত বকাঝকা হত, ডমিঙ্গো এভাবে করে না। ও ড্রেসিংরুম শান্ত রাখার চেষ্টা করে। একেক কোচের একেকরকম কৌশল ও দর্শন থাকে।’

তাছাড়া ব্যর্থতার দায় কোচের ওপর দিতে নারাজ রিয়াদ। তিনি বলেন, ‘ব্যর্থতার দায়ভার সবাইকেই নিতে হবে। পুরো দলকেই দায় নিতে হবে। শুধু একজন বা টিম ম্যানেজমেন্ট বা নির্দিষ্ট কোনো খেলোয়াড় না। পুরো দলই ব্যর্থ। এভাবেই দেখা উচিৎ।’

রিয়াদ আরও বলেন, ‘আমি যতটুকু বুঝি, খেলোয়াড় ও কোচিং স্টাফের মধ্যে কোনো সমস্যা নেই। আপনি যে সিদ্ধান্তের কথা বললেন তা পুরোপুরি ক্রিকেট বোর্ডের কাছে। অধিনায়ক বা সিনিয়র ক্রিকেটার হিসেবে আমার কাজ খেলোয়াড়দের পাশে থাকা, তাদের আগলে রাখা, প্রেরণা দেওয়া, পারফরম্যান্স আদায় করে নেওয়া। আমি এই জিনিসগুলোতেই মনোযোগী ছিলাম।’