নিজের ভুল শুধরাতে সুযোগ চান মুশফিক

আসন্ন পাকিস্তান সিরিজে টাইগার স্কোয়াড থেকে বাদ পড়েছেন মি. ডিপেন্ডেবল খ্যাত মুশফিকুর রহিম। তবে প্রধান নির্বাচক জানিয়েছিলেন বাদ নয় তাকে বিশ্রাম দেওয়া হয়েছে। অবশ্য মুশফিক বলছেন বিশ্রাম চাননি তিনি। বরং একটু সুযোগের অপেক্ষায় ছিলেন, যার মাধ্যমে নিজের ভুলগুলো শুধরিয়ে নিতেন তিনি।

সম্প্রতি এক সাক্ষাৎকারে এ ব্যাপারে মুশফিকুর রহিম বলেন, “নাহ, এখনও আমি ওই পর্যায়ে যাইনি যে, বিশ্রাম নেওয়ার জন্য কাউকে বলতে হবে। যদি কখনও মনে করি… কোভিড পরিস্থিতিতে টানা ৫-৬ মাস খেলা খুব কঠিন, শারীরিক ও মানসিক দিক থেকে, বিশেষ করে বায়ো-বাবলে থেকে। এখনও ওই পর্যায়ে যাইনি আমি।”

তিনি আরও যোগ করেন, “তবে যেহেতু হতাশাজনক বিশ্বকাপ ছিল, শুধু আমার নিজের জন্য নয়, দল হিসেবেও, সেদিক থেকে মুখিয়ে ছিলাম যে, এই তিনটি টি-টোয়েন্টিতে সুযোগ পেলে চেষ্টা করতাম ভুল শুধরে নেওয়ার এবং ভালো করার। বিশ্বকাপের আগে ঘরের মাঠে বাংলাদেশ যে দুটি সিরিজ জিতেছে, সেই মোমেন্টাম যেন আবার ফিরিয়ে আনতে পারি। দুর্ভাগ্যজনকভাবে সেটি হয়নি। তবে দলের সবার জন্য শুভ কামনা। সবারই সামর্থ্য আছে। তাদের খেলা দেখার জন্য মুখিয়ে আছি।”

মুশফিক বলেন, ‘ক্রিকেটার হিসেবে উত্থান-পতন থাকবেই ক্যারিয়ারে। আর এটাই তো প্রথমবার নয়। হ্যাঁ, অনেক দিন পর বাদ পড়লাম। আমার কাছে নরম্যালই মনে হয়েছে। বিশ্বকাপে নিজের কাছে আমার যে প্রত্যাশা ছিল, সত্যি বলতে সে অনুযায়ী খেলতে পারিনি। এই কারণেই যদি বাদ দিয়ে থাকে, ক্রিকেটার হিসেবে আমি ভালোভাবেই নিচ্ছি।’

তিনি আরও বলেন, ‘দিনশেষে আমি বিশ্বাস করি, আল্লাহ যা করেন, ভালোর জন্যই করেন। সামনে যেহেতু টেস্ট সিরিজ আছে, সেটার প্রস্তুতি নেওয়ার বড় ব্যাপার ছিল আমার জন্য। টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেললে হয়তো মাত্র দুদিন পেতাম। অনেক দিন পর বড় দৈর্ঘ্যের ক্রিকেট খেলব। এখন ১০-১২ দিন পাচ্ছি টেস্টের আগে। উপযুক্ত প্রস্তুতি নেওয়ার সুযোগ থাকছে।’