পাকিস্তানি ক্রিকেটারদের থেকে শিখতে চান তাসকিন

বাংলাদেশের ক্রিকেটকে আজকের এই উচ্চ পর্যায়ে নিয়ে আসতে যে কয়জন ক্রিকেটার সামনে থেকে নেতৃত্ব দিয়েছেন তাঁর মধ্যে তাসকিন অন্যতম। এই পর্যন্ত অনেক রেকর্ড নিজের করে নিয়েছেন এই তারকা ক্রিকেটার।

নতুন খবর হচ্ছে, সদ্য শেষ হওয়া টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে চরম লজ্জাজনক পারফর্মেন্সের পরও বাংলাদেশের একমাত্র অর্জন তাসকিন আহমেদের পারফর্মেন্স। বাকিদের ব্যর্থতার মাঝেও দুর্দান্ত পারফর্মেন্স করেছেন এই তরুণ পেসার। এবার পরীক্ষা দেশের মাটিতে পাকিস্তানের বিপক্ষে। আগামী ১৯ তারিখ থেকে শুরু হবে সিরিজ। বিশ্বকাপে শাহিন আফ্রিদি কিংবা হাসান আলীরা যা করে দেখিয়েছেন, তা নিঃসন্দেহে দারুণ। তাসকিনের আশা, সুযোগ হলে পাকিস্তানি পেসারদের থেকে কিছু টিপস নেবেন।

বিসিবির পাঠানো ভিডিওবার্তায় তাসকিন বলেন, ‘জাতিগত ভাবেই পাকিস্তানে অনেক লেজেন্ডারি ফাস্ট বোলার আগে থেকেই আছে। তুলনামূলকভাবে আমরা এখানে অনেক পিছিয়ে। কিন্তু ইমপ্রুভ হচ্ছে। যেহেতু একসাথে সিরিজ খেলছি, যদি সুযোগ হয় ওদের সাথে কথা বলব। ওরা যদি কথা বলার সময় কিছু শেয়ার করে, সেটা আমাদের ফাস্ট বোলারদের কাজে লাগতেও পারে। ওদের আসলে সব ধরনের ফরম্যাটে সব ধরনের ফাস্ট বোলার আছে। তো এটা আসলে অনেক আত্মবিশ্বাস দেয়, কারণ এশিয়ার কন্ডিশনে থেকেও তারা অনেক ফাস্ট বোলার পাচ্ছে। এক্ষেত্রে ওদের দেশের কন্ডিশনটাও একটা ফ্যাক্টর। আশা করি, ওদের মতো আমাদের দেশেও আরও ফাস্ট বোলার আসবে।’

এই তরুণ পেসার আরও বলেন, ‘কোনো সন্দেহ নেই যে, টি-টোয়েন্টিতে পাকিস্তান বিশ্বের অন্যতম শীর্ষ একটা দল। বিশ্বকাপে তারা দারুণ খেলেছ, যদিও দূর্ভাগ্যক্রমে সেমিফাইনালে হেরে গেল। তাদের সবগুলো ডিপার্টমেন্টই ভালো করছে। তাদের বিপক্ষে ভালো ক্রিকেট খেলতে হলে আমাদেরও সব ডিপার্টমেন্ট ভালো করতে হবে এবং সেটা নিয়ে আমরা কাজ করছি। আশা করি যে, অবশ্যই ভালো কিছু উপহার দিতে পারব আমরা দেশকে। সেটা অবশ্যই সহজ হবে না। তবে আমরা আশাবাদী।’

তাসকিন জানালেন, বর্তমান সময়ে দেশের অন্যতম সেরা পেসারের তকমা পেলেও ফাস্ট বোলিং নিয়ে এখনও শিখছেন তিনি। নিজেকে তিনি রূপ দিতে চান বিশ্বমানের পেসার হিসেবে, যা তার স্বপ্ন।