বল হাতে ৭ উইকেট নিয়ে নিজের জাত চেনালেন মিঠুন

বাংলাদেশের ক্রিকেটকে আজকের এই উচ্চ পর্যায়ে নিয়ে আসতে যে কয়জন ক্রিকেটার সামনে থেকে নেতৃত্ব দিয়েছেন তাঁর মধ্যে মিঠুন অন্যতম। এই পর্যন্ত অনেক রেকর্ড নিজের করে নিয়েছেন এই তারকা ক্রিকেটার।

সাভারে বল হাতে ক্যারিয়ার সেরা বোলিং করেছেন খুলনার অধিনায়ক মোহাম্মদ মিঠুন। প্রথমবারের মতো প্রথম শ্রেণীর ক্রিকেটে পাঁচ উইকেট পেলেন মিঠুন।

সাধারণত উইকেটরক্ষকের ভূমিকা পালন করতেই দেখা যায় মিঠুনকে। জাতীয় দলে মুশফিক, লিটন, সোহানদের ভিড়ে সুযোগ না হলেও ঘরোয়া ক্রিকেটে নিয়মিত স্ট্যাম্পের পেছনে দেখা যায় তাকে। তবে ব্যাটিং, উইকেটকিপিংয়ের পাশাপাশি বল হাতেও নিজেকে পাকাপোক্ত করে ফেলছেন মিঠুন।

অতীতে টুকটাক বোলিং করার ইতিহাস থাকলেন এদিন সাভারে রেকর্ডই গড়েছেন। এর আগে প্রথম শ্রেনীর ক্রিকেটে ১০৮ ম্যাচ খেলে নিয়েছেন ৬টি উইকেট। এবার তো এক ইনিংসেই তা ভেঙেছেন। সাভারে ২৩তম বঙ্গবন্ধু জাতীয় ক্রিকেটে লিগে ঢাকার বিপক্ষে দ্বিতীয় ইনিংসে বল হাতেই একাই ধ্বস নামান মিঠুন।

দ্বিতীয় ইনিংসে প্রথম উইকেটে বড় জুটি গড়েন ঢাকার দুই ওপেনার আবদুল মজিদ ও রনি তালুকদার। দলীয় ১৩৯ রানে বোলিংয়ে এসে প্রথম উইকেট নেন মিঠুন। এরপরই শুধু মিঠুনের বোলিং ঝলক। একের পর এক উইকেট নিতে থাকেন মিঠুন। দলীয় ২৩৯ রানে নাদিফকে এলবিডব্লুর ফাঁদে ফেলেন মিঠুন।

আম্পায়ার তাঁর আবেদনে সাড়া দিলে ক্যারিয়ারের প্রথমবার পাঁচ উইকেট লাভ করেন তিনি। অবশ্য সেখানেও থামেননি। ঢাকার ৮ উইকেটের মধ্যে ৭টিই নিয়েছেন মিঠুন। তাঁর রেকর্ডগড়া বোলিংয়ের দিনে ২৫৬ রানে থামে ঢাকা। জবাবে দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাট করতে নেমে তৃতীয়দিন শেষে বিনা উইকেটে ৭ রান করে খুলনা।