বাংলাদেশের হারের পর এক খুদে ভক্তের কান্না

পাকিস্তান- বাংলাদেশের খেলা মানেই টানটান উত্তেজনা। খেলার মাঠে কোন দলই হার মেনে নিতে চায়না। তবে শেষ হাসি হাঁসতে হয় যে কোন এক দলকেই।

রুদ্ধশ্বাস ম্যাচে পাকিস্তানের কাছে ৫ উইকেটে হেরে তিন ম্যাচ সিরিজে হোয়াইটওয়াশ হয়েছে বাংলাদেশ। শেষ ওভারে ৩ উইকেট নিয়ে চরম নাটকীয়তার পরও দলকে জেতাতে পারেননি অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ। দলের এমন দুঃখজনক হারে সমর্থকদের মন ভিজে গেছে। এতদিন যে দলের খেলা দেখে মনে জমে থাকা বিরক্তি আজ মুহূর্তে উবে গিয়ে স্থান করে নিয়েছে কষ্ট। চোখের কোণে জমা হয়েছে অশ্রু।

এই সিরিজ দিয়েই লম্বা করোনাকাল কাটিয়ে মিরপুর শেরে বাংলার গ্যালারিতে ফিরেছে দর্শক। করোনা টিকার শর্ত দিয়ে অর্ধেক দর্শক প্রবেশের অনুমতি দেওয়া হয়েছিল। গ্যালারির সেই অর্ধেক আসনের একটিও খালি ছিল না। এসেছিলেন নারী-পুরুষ এবং শিশুরাও। সবাই যে দেশের হয়ে গলা ফাটিয়েছেন, সেটা হলফ করে বলা যাবে না। কারণ এই মিরপুরেই উড়েছে পাকিস্তানের পতাকা! এই বাংলাদেশের মানুষই পাকিস্তানের জয়ে উল্লাস করেছে! পাকিস্তানের পতাকা উড়িয়েছে!

আজ তৃতীয় ম্যাচের আগে বাংলাদেশের পাকিস্তানি সমর্থকদের প্রতিরোধের ডাক দিয়েছিলেন কিছু ক্রিকেটপ্রেমী তরুণ। স্টেডিয়ামের বাইরে তারা অবস্থান নেন। পাকিস্তানের পতাকাবাহী কয়েকজনকে স্টেডিয়ামে ঢুকতেও দেওয়া হয়নি। ম্যাচের শেষে ক্যামেরা খুঁজে নেয় এই শিশুটিকে। দলের রুদ্ধশ্বাস পরাজয়ে তার অশ্রু বাঁধ মানছিল না। সঙ্গে থাকা অভিভাবক তাকে স্বান্ত্বনা দিচ্ছিলেন। কিন্তু কেঁদেই যাচ্ছিল শিশুটি। দিন শেষে এটাই বাংলাদেশের ক্রিকেট সংস্কৃতি। ক্রিকেটারদের বাজে পারফর্মেন্সে একসময় বিরক্তি আসলেও দলের পরাজয়ে ভিজে যায় চোখ।