বিদ্যুৎস্পৃষ্টে মারা গেলেন ছাত্রলীগ নেতা

যে জন্মেছে সে মরবেই। যার সূচনা হয়েছে তার সমাপ্তি ঘটবেই। এটা খোদা পাকের শাশ্বত চিরন্তন বিধান। এ অমোঘ বিধানের কোন পরিবর্তন পরিবর্ধন নেই। পৃথিবীর বুকে সবচেয়ে চির ও অনড় সত্য হলো মৃত্যু।

নতুন খবর হচ্ছে, কুমিল্লার লালমাইতে বিদ্যুৎ স্পৃষ্টে মারা গেছেন আবদুল্লাহ আল খিদরী (২৫) নামে এক ছাত্রলীগ নেতা। তিনি ঢাকা কলেজ ছাত্রলীগের সদস্য, উপজেলা ছাত্রলীগের দপ্তর সম্পাদক ও উপজেলার বাকই ইউনিয়ন ছাত্রলীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদকের পদে ছিলেন। সোমবার নিজ বাড়িতে বিদ্যুৎ স্পৃষ্টে মারা গেছেন তিনি।

খিদরীর উপজেলার বাকই উত্তর ইউনিয়নের রসুলপুর গ্রামের প্রবাসী আবদুল আউয়ালের ছেলে। তারা দুই ভাই ও এক বোন। বাবা ও ছোট ভাই প্রবাসী। বোনকে নিয়ে গ্রামে থাকতেন তার মা। করোনায় তিনি গ্রামে আসার পর আর কলেজের উদ্দ্যেশ্যে ঢাকায় যাননি। তিনি ঢাকা কলেজের মাস্টার্সের শিক্ষার্থী ছিলেন।

উপজেলা ছাত্রলীগ ও তার পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, সোমবার দুপুর আনুমানিক ১টার দিকে খিদরী খাবার খেতে রান্না ঘরে যান। সেখানে তিনি ঘরের একটি বৈদ্যুতিক তার খোলা অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখেন। তারটি সরাতে কাছে গেলে অজান্তেই বিদ্যুৎ স্পৃষ্ট হন। পরে তাকে উদ্ধার করে লাকসাম জেনারেল হাসপাতালে নেওয়ার পথে মারা যান খিদরী। খিদরীর মৃত্যুতে তার গ্রাম, কুমিল্লা দক্ষিণ জেলা ছাত্রলীগ ও উপজেলা ছাত্রলীগে নেমে এসেছে শোকের ছায়া।