বিসিবি সভাপতি পাপন না থাকায় সিরিজ জিতেও ট্রফি পায়নি পাকিস্তান

‘ক্রিকেট ইজ অ্যা জেন্টলম্যান’স গেইম’ বলে একটি কথা আছে। কিন্তু কোথাও লেখা দেখিনি বা শুনিনি যে ‘ক্রিকেট ইজ এ ফানি গেইম’। তবে অনেকেই মনে করে ক্রিকেট একটি মজার খেলা। আসলে মনে করাটাই স্বাভাবিক, কেননা ডব্লিউ জি গ্রেসের মতে এই আধুনিক ক্রিকেটটা আসলেই কয়েক’শ কোটি মানুষের বিনোদনের খোরাক যোগাচ্ছে।

নতুন খবর হচ্ছে, টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের ব্যর্থতা না ভুলতেই পাকিস্তানের বিপক্ষে তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজে হোয়াইটওয়াশ হয় বাংলাদেশ দল। অপরদিকে উড়তে থাকা পাকিস্তান বিশ্বকাপের সেমিফাইনালে হোঁচট খেলেও বাংলাদেশের বিপক্ষে ঠিকই দুর্দান্ত পারফরম্যান্স দেখিয়েছে।

গত ২২ নভেম্বর সিরিজের শেষ ম্যাচ জেতার পর আনুষ্ঠানিকভাবে পাকিস্তান দলের হাতে ট্রফি তুলে দেওয়ার কথা ছিল বিসিবির। কিন্তু ম্যাচ শেষ হওয়ার পর বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন না থাকায় ট্রফি পাওয়া হলো না সফরকারীদের। যে কারণে রিতিমতো অবাক হয়েছে দলটি। ট্রফি না পাওয়ার হতাশা ভুলতে একত্রিত হয়ে সেলফি তোলেন তারা।

ট্রফি না পাওয়ার কারণ জানিয়ে বিসিবির এক মুখপাত্র জানান, জয়ী দলকে ট্রফি তুলে দেওয়ার কথা ছিল বোর্ডের কর্মকর্তাদের। অনুষ্ঠানে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছিল বিনিয়োগকারীদেরও। কিন্তু সভাপতিসহ অন্যান্য কর্মকর্তা এবং বিনিয়োগকারী সংস্থার মালিকরা ওই সময় জৈব সুরক্ষা বলয়ে ছিলেন না। করোনাবিধি পালনে যথেষ্ঠ সতর্ক বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড। তাই ক্রিকেটারদের কাছে তাদের ঘেঁষতে দেওয়া হয়নি। ফলে বাবর আজমদের হাতে ট্রফিও তুলে দেওয়া হয়নি।

অবশ্য ট্রফি কখন দেওয়া হবে সে ব্যাপারে জানিয়েছে বিসিবি। বোর্ডের ওই মুখপাত্র জানায়, দুদলের মধ্যে টেস্ট সিরিজ শেষ হয়ে যাওয়ার পর বাবর আজমদের হাতে তুলে দেওয়া হবে টি-টোয়েন্টি সিরিজ জয়ের ট্রফি।