ভাত খাওয়ার সময় মারা গেলেন মেম্বারপ্রার্থী

“মৃত্যু” এক নির্মম, কঠিন বাস্তবতার নাম। মৃত্যু এমন এক মেহমান, যে দরজায় এসে দাড়িয়ে গেলে তাকে ফিরিয়ে দেওয়ার ক্ষমতা দুনিয়ার কারো নেই! মৃত্যু যেকোন বয়সের, যেকোন মানুষের সামনে, যেকোন সময়ে উপস্থিত হতে পারে!

নতুন খবর হচ্ছে, তৃতীয় ধাপের ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচনে ভোটগ্রহণের আর মাত্র নয়দিন বাকি। এর আগেই মারা গেলেন কুড়িগ্রামের নাগেশ্বরী উপজেলার কচাকাটা ইউনিয়নের ২ নম্বর সংরক্ষিত নারী সদস্য (মেম্বার) প্রার্থী মেনেকা বেগম।

শুক্রবার (১৯ নভেম্বর) ইউনিয়নের ছাটবাড়ি গ্রামে নিজ বাড়িতে ভাত খাওয়ার সময় মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়েন তিনি।

মেনেকা বেগম ইউনিয়নের ছাটবাড়ি গ্রামের গোলাপ উদ্দিনের স্ত্রী। তিনি বক প্রতীক নিয়ে ওই ইউনিয়নের ৪, ৫ ও ৬ নম্বর ওয়ার্ডে মেম্বারপ্রার্থী ছিলেন।

পরিবার সূত্র জানায়, শুক্রবার সকালে মেনেকা বেগম নিজ বাড়ির আঙিনায় ভাত খেতে বসেন। ভাত খাওয়া অবস্থায়ই তিনি শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন।

মেনেকা বেগমের স্বামী গোলাপ উদ্দিন বলেন, ‘নির্বাচনে অংশ নেওয়ার পর থেকে বেশ ব্যস্ত সময় পার করছিলেন মেনেকা বেগম। বিশেষ করে প্রতীক বরাদ্দের পর থেকে তিনি প্রতিদিন সকালে প্রচারণায় বের হতেন। শুক্রবারও প্রচারণায় বের হওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন। হয়তো তাড়াহুড়ো করে খেতে গিয়ে গলায় ভাত আটকে তার মৃত্যু হয়েছে।’