রাবি ভর্তি পরীক্ষায় প্রথম হলেন কাঠমিস্ত্রি

ইচ্ছাশক্তির দ্বারা যে কোনো অসাধ্য সাধন করা যায়। মানুষের অন্তরে এমন এক শক্তি নিহতি যার জাগরণ ঘটাতে পারলে যে কোনো অসাধ্য সাধন করা সম্ভব ।

নতুন খবর হচ্ছে, কাঠমিস্ত্রির কাজের ফাঁকে পড়াশোনা করে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় (রাবি) স্নাতক সম্মান প্রথম বর্ষের ভর্তি (শিক্ষাবর্ষ ২০২০-২০২১) পরীক্ষায় ‘বি’ ইউনিটে প্রথম স্থান অর্জন করেছেন মেধাবী শিক্ষর্থী মোস্তাকিম আলী। তিনি রাজশাহীর তানোর উপজেলার বাঁধাইড় মিশনপাড়া গ্রামের শামায়ুন আলীর ছেলে।

অদম্য, পরিশ্রমী ও মেধাবী শিক্ষার্থীকে তাই সংবর্ধনা দিলেন- রাজশাহী মেট্রোপলিটন পুলিশ (আরএমপি) কমিশনার মো. আবু কালাম সিদ্দিক। মোস্তাকিমের এই ঈর্ষণীয় ফলাফলের পর তার সম্পর্কে খোঁজ-খবর নেন আরএমপি কমিশনার। পরে তাকে নিজ দফতরে ডেকে ক্রেস্ট দিয়ে সংবর্ধনা দেন। এর পাশাপাশি শিক্ষা উপকরণ কেনার জন্য তার হাতে নগদ অর্থও তুলে দেন। এছাড়া ভবিষ্যতে যেকোনো ধরনের সহযোগিতা লাগলে তা করার আশ্বাস দেন আরএমপি কমিশনার।

বৃহস্পতিবার (১৮ নভেম্বর) দুপুরে আরএমপি সদর দফতরে রাজশাহী মেট্রোপলিটন পুলিশের উদ্যোগে এই সংবর্ধনা অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

পুলিশ কমিশনার বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়ার প্রত্যয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ২০৪১ সালের মধ্যে বাংলাদেশকে উন্নত-সমৃদ্ধ দেশে পরিণত করার লক্ষ্যে এগিয়ে যাচ্ছেন। সেই লক্ষ্য অর্জনে মোস্তাকিমের মতো তরুণ মেধাবীদেরই এগিয়ে আসতে হবে। মোস্তাকিমরাই জাতির সম্পদ। তাদের গড়ে তোলা আমাদের সবারই নৈতিক দায়িত্ব। এমন মেধাবীদের মেধা বিকাশে এবং বিভিন্ন ক্ষেত্রে পৃষ্ঠোপোষকতা করতে হবে। তবেই বাংলাদেশ উন্নত-সমৃদ্ধ দেশে পরিণত হবে বলেও এ সময় মন্তব্য করেন আরএমপি কমিশনার।

তিনি মোস্তাকিমের মত এমন মেধাবীদের পাশে থাকবেন বলেও জনান।

অনুষ্ঠানে পুলিশ কমিশনারের কাছ থেকে সংবর্ধনা পেয়ে উচ্ছ্বাস প্রকাশ করেন মোস্তাকিম। এ জন্য তাকে ধন্যবাদ দেন এবং কৃতজ্ঞতা জানান।