সকাল না হতেই টঙ্গীতে আগুনে পুড়লো পাঁচ শতাধিক ঘর

এবার গাজীপুরের টঙ্গীতে অগ্নিকাণ্ডে সেনা কল্যাণ ভবনের পাশের বস্তির অন্তত পাঁচ শতাধিক ঘর পুড়ে গেছে। খবর পেয়ে ফায়ার স্টেশনের ৯টি ইউনিটের কর্মীরা ঘটনাস্থলে পৌঁছে পৌণে এক ঘণ্টা চেষ্টা চালিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনেন। আজ শনিবার (২৭ নভেম্বর) ভোর সাড়ে ৪টায় এ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে।

এদিকে গাজীপুর মহানগরের ৫৭ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর গিয়াস উদ্দিন সরকার জানান, ভোরে ওই বস্তির একটি ঘরে আগুন লাগে। বস্তির ঘরগুলো ঘন হওয়ায় আগুন দ্রুত পাশের ঘরগুলোতে ছড়িয়ে পড়ে। খবর পেয়ে টঙ্গী, উত্তরা এবং ঢাকার কুর্মিটোলা ফায়ার স্টেশনের কর্মীরা ঘটনাস্থলে পৌঁছে পৌণে এক ঘণ্টা (সকাল পৌনে ৬টায়) চেষ্টা চালিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। ফায়ার সার্ভিস কর্মীদের সঙ্গে স্থানীয়রাও আগুন নিয়ন্ত্রণে কাজ করেছে।

এ ব্যাপারে টঙ্গী ফায়ার সার্ভিস স্টেশনের সিনিয়র অফিসার ইকবাল হাসান জানান, বস্তিতে ঘরগুলো ঘন হওয়ায় ফায়ার সার্ভিসের গাড়ি ভেতরে ঢুকতে পারেনি। ভেতরে ঢোকার মতো রাস্তাও ছিল না। বস্তির বাইরে থেকে পানি সংগ্রহ করে আগুন নেভাতে হয়েছে। ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা এখন ডাম্পিংয়ের কাজ করছে। এ ঘটনায় হতাহতের তথ্য নেই। বস্তিতে প্রায় হাজার খানেক ঘর ছিল। আগুণে পাঁচশ’র বেশি ঘর পুড়ে গেছে বলে জানান তিনি।

এ সময় ফায়ার সার্ভিস কর্মকর্তা ইকবাল হাসান আরও বলেন, প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে মশার কয়েল থেকে অগ্নিকাণ্ডের সূত্রপাত হয়েছে। পুড়ে যাওয়া প্রায় ঘরেই গ্যাস সিলিন্ডার ছিল। আগুনের তাপে গ্যাস সিলিন্ডারগুলোর পাইপ লিকেজ হয়ে আগুন দ্রুত ছড়িয়ে পড়ে এবং নিয়ন্ত্রণহীন হয়ে যায়।