সেঞ্চুরি হাঁকিয়ে নিজের জাত চেনালেন লিটন দাস

বাংলাদেশের ক্রিকেটকে আজকের এই উচ্চ পর্যায়ে নিয়ে আসতে যে কয়জন ক্রিকেটার সামনে থেকে নেতৃত্ব দিয়েছেন তাঁর মধ্যে মুশফিক অন্যতম। এই পর্যন্ত অনেক রেকর্ড নিজের করে নিয়েছেন এই তারকা ক্রিকেটার।

নতুন খবর হচ্ছে, আজ শুক্রবার পাকিস্তানি বোলার নুমান আলীর বলে সিঙ্গেল মেরে সেঞ্চুরি স্পর্শ করেন লিটন। ১৯৯ বলে পেয়ে গেলেন ক্যারিয়ারের প্রথম টেস্ট সেঞ্চুরি। শতক হাঁকাতে লিটন খেলেছেন ১০টি বাউন্ডারি ও একটি ছক্কা। এর আগে নিজের শেষ টেস্ট ম্যাচেও সেঞ্চুরির আভাস জাগিয়েছিলেন লিটন। কিন্তু পারেননি। গত জুলাইতে হারারেতে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ৯৫ রানে আউট হয়ে ফিরতে হয়েছিল তাঁকে। কিন্তু এবার আর ভুল করলেন না।

চট্টগ্রামে পাকিস্তানের বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে টেস্ট চ‍্যাম্পিয়নশিপের এবারের আসরে নিজেদের অভিযান শুরু করেছে বাংলাদেশ। দুই ম্যাচ সিরিজের প্রথমটিতে টস জিতে ব্যাটিংয়ে নেমে প্রথম সেশনে চার উইকেট হারালেও দ্বিতীয় সেশনে ভালোই প্রতিরোধ গড়েছে বাংলাদেশ। দুই ব্যাটার মুশফিকুর রহিম ও লিটন দাসের ব্যাটে শক্ত জুটি গড়েছে মুমিনুল হকের দল।

জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে ব্যাটিংয়ে নেমে ভালো শুরুর আভাস দেয় স্বাগতিকরা। দুই ওপেনার সাইফ হাসান ও সাদমান ইসলাম সতর্ক ব্যাটিংয়ে দিন শুরু করেন।

তবে, বেশিক্ষণ থিতু হলো না বাংলাদেশের ওপেনিং জুটি। দলীয় ১৯ রানে বিদায় নিয়েছেন সাইফ। শাহীন শাহ আফ্রিদির বলে শর্ট ফাইন লেগে আবিদ আলীর হাতে ক্যাচ তুলে দেন তিনি। অবশ্য বলটি সাইফের ব্যাট ছুঁয়ে কাঁধে লেগে ওপরে যায়। কিছু বুঝে ওঠার আগেই ক্যাচ লুফে নেন আবিদ। ব্যক্তিগত ১৪ রানে সাজঘরে ফিরেছেন তরুণ এই ওপেনার।

এরপর টিকলেন না আরেক ওপেনার সাদমান। ঠিক ১৪ রান করে তিনিও বিদায় নিয়েছেন। সাজঘরে ফিরেছেন অধিনায়ক মুমিনুলও(৬) ও নাজমুল হোসেন শান্ত। ৪ উইকেট হারিয়ে প্রথম সেশনে নড়বড়ে ছিল বাংলাদেশ। লাঞ্চের আগে ৪ উইকেট হারিয়ে ৬৯ রান করে মুমিনুলের দল। এরপর মুশফিক-লিটনের ব্যাটে লড়াই করছে বাংলাদেশ।