স্বাস্থ্যের নথি গায়েবের ঘটনায় ৪ কর্মচারী বরখাস্ত

অবশেষে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয় থেকে ১৭টি নথি গায়েবের ঘটনায় স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের ৪ কর্মচারীকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। আজ মঙ্গলবার দুপুরে সচিবালয়ে এ-কথা জানান স্বাস্থ্য শিক্ষা বিভাগের সচিব মো. আলী নুর।

এদিকে সাময়িক বরখাস্ত হওয়া এই চার কর্মচারী হলেন- ক্রয় ও সংগ্রহ-২ শাখার সাঁট মুদ্রাক্ষরিক কাম কম্পিউটার অপারেটর আয়েশা সিদ্দিকা ও জোসেফ সরদার, প্রশাসন-২ শাখার (গ্রহণ ও বিতরণ ইউনিট) অফিস সহায়ক বাদল চন্দ্র গোস্বামী এবং প্রশাসন-৩ শাখার অফিস সহায়ক মিন্টু মিয়া।

এ সময় মো. আলী নুর সাংবাদিকদের বলেন, “কমিটি রিপোর্ট জমা দিয়েছে এবং সে অনুযায়ী অ্যাকশন চলমান আছে। তাদের সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। এখন প্রসিডিংস চলছে, তা চলবে। ফাইনালি যে জাজমেন্ট হবে, সে অনুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।”

এদিকে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের ১৭ ফাইল গায়েবের বিষয়ে গত ২৮ অক্টোবর রাজধানীর শাহবাগ থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করে মন্ত্রণালয়।

এতে বলা হয়, ২৭ অক্টোবর অফিস করে নথিগুলো ফাইল কেবিনেটে রাখা হয়। পরদিন বেলা ১২টায় কাজ করতে গিয়ে দেখা যায় ফাইলগুলো কেবিনেটের মধ্যে নেই। যে নথিগুলো খোয়া গেছে, সেগুলোর বেশির ভাগই স্বাস্থ্য শিক্ষা বিভাগের অধীন বিভিন্ন মেডিকেল কলেজ ও বিভাগের কেনাকাটা-সম্পর্কিত।