ঈদের দিনে ঘুরতে বেরিয়ে দুর্ঘটনায় প্রাণ গেল তিন মোটরসাইকেল আরোহীর

আজ বগুড়ার নন্দীগ্রাম উপজেলায় ঈদের দিন ঘুরতে বেরিয়ে পৃথক দুর্ঘটনায় মোটরসাইকেলের তিন আরোহীর মৃত্যু হয়েছে। এতে শিশুসহ তিনজন আহত হয়েছেন। আজ শনিবার ২২ এপ্রিল বিকেলে উপজেলার কাথম বেড়াগাড়ি এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহত তিনজন হলেন- বগুড়া নন্দীগ্রাম উপজেলার দামগাড়া গ্রামের নান্টু মিয়ার ছেলে ইমরান হোসেন (২৮), কল্যাণনগর গ্রামের ইয়াকুব আলীর ছেলে বুলবুল (৩০) ও গাইবান্ধার সদর উপজেলা গোলাম হোসেনের ছেলে আবিদার হোসেন (২৪)। এ ঘটনায় নিহত ইমরানের স্ত্রী, ভাতিজা ও নিহত আবিদারের বন্ধু আহত হয়েছেন। তারা বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ (শজিমেক) হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

জানা যায়, দুই যুবক নন্দীগ্রাম থেকে মোটরসাইকেল নিয়ে বগুড়ার দিকে যাচ্ছিলেন। এ সময় কুন্দারহাট থেকে নন্দীগ্রামের দিকে যাওয়ার সময় কাথম বেড়াগাড়ি এলাকায় বিপরীত দিক থেকে আসা অন্য আরেকটি মোটরসাইকেলের মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে ঘটনাস্থলেই আবিদার হোসেনের মৃত্যু হয়। অপর মোটরসাইকেলে থাকা তিনজন গুরুতর আহত হন।

তাদের দ্রুত উদ্ধার করে বগুড়া শজিমেক হাসপাতালে নেওয়া হলে চিকিৎসক ইমরানকে মৃত ঘোষণা করেন। স্থানীয়দের দাবি তারা বেপরোয়া গতিতে মোটরসাইকেল চালিয়ে যাচ্ছিলেন। বেপরোয়া গতির কারণেই এ দুর্ঘটনা ঘটেছে বলেও জানান তারা।

এদিকে ভাটগ্রাম ইউনিয়নের ছয় নম্বর ওয়ার্ড সদস্য জাহাঙ্গীর আলম বাবু জানান, বিকেলে কাথম মোড়ে সিএনজিচালিত অটোরিকশার সঙ্গে একটি মোটরসাইকেলের সংঘর্ষ হয়। এতে বুলবুল ও মানিক নামে দু’জন আহত হন। তাদের উদ্ধার করে শজিমেক হাসপাতালে নেওয়া হলে চিকিৎসক বুলবুলকে মৃত ঘোষণা করেন।

এ বিষয়ে কুন্দারহাট হাইওয়ে পুলিশের ইনচার্জ উপ-পরিদর্শক (এসআই) আবুল হাসনাত জানান, নিহত তিনজনের মরদেহ উদ্ধার করে শজিমেক হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। এছাড়া দুর্ঘটনা কবলিত মোটরসাইকেলগুলো পুলিশ হেফাজতে রয়েছে। এ ব্যাপারে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে।