শাহীন শাহকে শ্বশুর বলে ডাকতে না করলেন আফ্রিদি

শহীদ আফ্রিদি পাকিস্তানের সাবেক অধিনায়ক। যার ব্যাটে কচুকাটা হতো বিশ্বের নামিদামী বোলারদের বল। ২২ গজে ব্যাট হাতে নামলে আফ্রিদি ছিলেন প্রতিপক্ষ বোলারদের যমদূত। সম্প্রতি সাবেক ক্রিকেটার আফ্রিদির বড় মেয়েকে বিয়ে করেন পাকিস্তানের বর্তমান সময়ের পেস বোলিংয়ের নেতৃত্বদানকারী বাঁ-হাতি তরুণ পেসার শাহীন শাহ আফ্রিদি। তিনিও শ্বশুরের মতোই ২২ গজে বিশ্বের বড় বড় ব্যাটারদের ঘুম নষ্ট করার কাজে অতি পারদর্শী।

আফ্রিদি জাতীয় দল থেকে অবসর নিলেও এখনো ক্রিকেট খেলে যাচ্ছেন। সম্প্রতি তিনি জিতেছেন লেজেন্ডস লিগের শিরোপা। আর জামাই আফ্রিদি জিতেছেন পাকিস্তান সুপার লিগের (পিএসএল) শিরোপা। সম্প্রতি পাকিস্তানের সামা টিভির ঈদ শোতে শহীদ আফ্রিদি ও শাহীন শাহ আফ্রিদি উপস্থিত হয়েছিলেন। সেখানে শহীদ আফ্রিদি জামাতার উদ্দেশ্যে বলেন, আমি তোমার মুখ থেকে এই সম্বোধন দ্বিতীয়বার শুনতে চাই না। খবর: ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস

শহীদ আফ্রিদির মতে, সম্প্রতি তিনি লিজেন্ডস ক্রিকেট লিগে দলকে নেতৃত্ব দিয়ে শিরোপা জিতিয়েছেন। এখন খেলার ও শিরোপা জেতার সামর্থ্য থাকলে তাকে শ্বশুর ডাকা হবে কেন! এ সময় শাহীনও শ্বশুর শহীদ আফ্রিদিকে নিয়ে কথা বলেন। পাঁচ বছর আগে শহীদ আফ্রিদিকে পাকিস্তান সুপার লিগে আউট করা ও উদযাপন করতে গিয়েও না করায় বিষয় সামনে আনেন। এছাড়া শ্বশুর আফ্রিদি তার আইকন বলেও উল্লেখ করেছেন শাহিন।

তিনি বলেন, তিনি (শহীদ আফ্রিদি) আমার রোল মডেল। আমার উৎসাহ। লালার ব্যাটিং উপভোগ করতাম আমি। তিনি আউট হয়ে গেলে টিভি বন্ধ করে রাখতাম। তিনি আমার নায়ক, আমার কাছে বন্ধুর মতো। তার পরিবারের অংশ হবো কখনও ভাবিনি। তার বিপক্ষে খেলা, আউট করা স্বপ্ন পূরণ হওয়ার মতো ছিল।

এ সময় শাহীনের প্রশংসা করে শ্বশুর আফ্রিদি বলেন, আমি আমার স্ত্রী ও মেয়ের কাছে বন্ধুর মতো। শাহীন আমার ছেলের মতো। সে খুবই ভালো ছেলে এবং তার নেতৃত্বগুন আমাকে বিস্মিত করেছে। এমন তরুণ বয়সে তার এমন পরিপক্কতা আমাকে অবাক করেছে।