৩৩ বছর ধরে কাবা প্রাঙ্গণে তারাবির নামাজে কোরআন খতম করছেন শায়খ আল-সুদাইস

টানা ৩৩ বছর ধরে মক্কার পবিত্র মসজিদুল হারামে তারাবির নামাজে কোরআন খতম করছেন শায়খ ড. আবদুর রহমান আল-সুদাইস। প্রতি বছরের মতো এবারও তিনি কোরআন খতমের পর কান্নাজড়িত কণ্ঠে দীর্ঘ দোয়া পরিচালনা করেন। বর্তমানে তিনি মসজিদুল হারামের প্রধান ইমাম ও খতিব এবং মক্কা ও মদিনার পবিত্র দুই মসজিদের পরিচালনা পর্ষদের প্রধান হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন।

গতকাল বুধবার মক্কার ও মদিনার পবিত্র দুই মসজিদে তারাবির নামাজে কোরআন খতম অনুষ্ঠিত হয়েছে। মসজিদুল হারামের তারাবির নামাজে ইমাম হিসেবে ছিলেন শায়খ ড. ইয়াসির আল-দাওসারি ও শায়খ ড. আবদুর রহমান আল-সুদাইস এবং তাতে ২৫ লাখের বেশি মুসল্লি উপস্থিত ছিলেন।

এদিকে মসজিদে নববিতে ইমাম ছিলেন শায়খ ড. খালিদ বিন সুলাইমান আল-মুহান্না ও শায়খ ড. সালাহ বিন মুহাম্মদ আল-বুদাইর এবং তাতে তিন লাখ ৪০ হাজারের বেশি মুসল্লি অংশ নেন। নামাজের পর উভয় মসজিদে বিশেষ দোয়া অনুষ্ঠিত হয়। এতে সারাবিশ্বের মুসলিমদের জন্য ক্ষমা প্রার্থনা করা হয় এবং তাদের জন্য জাহান্নাম থেকে মুক্তি কামনা করা হয়।

দোয়ায় বিশেষভাবে সৌদি আরবসহ সব মুসলিম দেশগুলোর শান্তি-শৃঙ্খলা, নিরাপত্তা, স্থিতিশীলতা ও সমৃদ্ধি কামনা করা হয়। অশ্রুসিক্ত নয়নে হাত তুলে এই দোয়ায় অংশ নেন বিশ্বের লাখ লাখ মুসল্লি। শায়খ আবদুর রমহান আল-সুদাইস দীর্ঘ ৪০ বছর ধরে পবিত্র মসজিদুল হারামে ইমাম হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। তিনি মাত্র ২২ বয়সে ১৪০৪ হিজরি মোতাবেক ১৯৮৪ সালের মে মাসে খতিব ও ইমাম হিসেবে নিয়োগ পান।

২০১২ সাল মোতাবেক ১৪৩৩ হিজরিতে সৌদি আরবের মক্কা ও মদিনার পবিত্র দুই মসজিদের পরিচালনা পরিষদের প্রধান হিসেবে নিয়োগ পান। গত ৩৩ বছর ধরে তিনি হারাম শরিফের তারাবিতে কোরআন খতম করছেন। কোরআন খতম উপলক্ষে প্রতি বছর তিনি কান্নাজড়িত কণ্ঠে দীর্ঘ দোয়া পরিচালনা করেন।