আশরাফুল ইসলাম, গাইবান্ধা জেলা প্রতিনিধিঃ গাইবান্ধা জেলার গোবিন্দগঞ্জে বিয়ের প্রলোভনে এক যুবতীর সাথে দীর্ঘদিন যাবত কৌশলে অনৈতিক সম্পর্ক গড়ে তুলে প্রতারণা করার অভিযোগে বিজিবি সদস্যের বিরুদ্ধে থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে।

মামলার এজাহার সূত্রে জানাগেছে, উপজেলার তালুক কানুপুর ইউনিয়নের তালুক কানুপুর গ্রামের ২২ বছর বয়সী ঘটনার শিকার ওই যুবতীর সাথে একই ইউনিয়নের সমসপাড়া গ্রামের আকতার হোসেনের পুত্র মাফিজুল ইসলাম ওরফে মাসুদ কৌশলে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তোলে এবং বিয়ের প্রলোভন দিয়ে বিভিন্ন সময় তারা বিভিন্ন হোটেলে স্বামী-স্ত্রীর পরিচয়ে রাত্রি যাপন করে।

এ অবস্থায় তাদের সম্পর্ক ৪ বছর অতিবাহিত হয় এবং তাদের সম্পর্কের ঘটনাটি ক্রমশ স্থানীয় লোকজনের কাছে জানাজানি হলে ওই যুবতী মাসুদকে বিয়ের জন্য চাপ সৃষ্টি করে। গত ২২ এপ্রিল দুপুরে মাসুদ আবারও তাকে বিয়ের প্রলোভন দিয়ে ডেকে নিয়ে বিভিন্ন স্থানে ঘোরাঘুরির এক পর্যায়ে গোবিন্দগঞ্জ উপজেলার হরিরামপুর ইউনিয়নের বড়দহ ব্রীজের নিকট নির্জন স্থানে নিয়ে যায়। সেখানে স্থানীয় মানুষ তাদেরকে আপত্তিকর অবস্থায় আটক করে। এসময় মাসুদ ফোনে নিকটজনের কাছে বিষয়টি জানায়। এরপর মাসুদের স্বজনরা ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে মাসুদকে কৌশলে পালিয়ে যেতে সহায়তা করে এবং মাসুদ ঐ ঘটনার পর আত্মগোপন করে।

খবর পেয়ে থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে যুবতীকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে। ঘটনাটি স্থানীয়ভাবে মিমাংসার কথা বলে দুই দিন সময় অতিবাহিত হলে অবশেষে ধর্ষণের শিকার যুবতী নিরুপায় হয়ে অবশেষে বুধবার গোবিন্দগঞ্জ থানায় মাফিজুল ইসলাম ওরফে মাসুদের বিরুদ্ধে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে একটি মামলা দায়ের করেছে।

উল্লেখ্য মাফিজুল ইসলাম ওরফে মাসুদ বর্তমানে বাংলাদেশ বর্ডার গার্ড(বিজিবি) তে চাকুরীরত। গোবিন্দগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) একেএম মেহেদী হাসান বিষটি নিশ্চিত করে জানান, সুষ্ঠু তদন্ত সাপেক্ষে পরবর্তী আইনগত পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে।