মোঃ জুয়েল রানা, কুড়িগ্রাম প্রতিনিধিঃ কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ীতে পাওনা টাকা চাইতে গিয়ে দেনাদারের মোটর সাইকেলের চাপায় প্রাণ গেল আঞ্জু বেগম (৪০) নামের এক নারীর। ঘটনাটি ঘটেছে রবিবার সকাল ১১টার দিকে উপজেলার নাওডাঙ্গা ইউনিয়নের বালাতাড়ি গ্রামে। নিহত নারী ওই গ্রামের মৃত বাচ্চু মিয়ার স্ত্রী। ওই ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য রফিকুল ইসলাম ও স্থানীয়রার জানান, একই গ্রামের নবী মিয়ার ছেলে রবিউল ইসলাম (২৬) আঞ্জু বেগমের কাছে ১ লক্ষ টাকা ধার নেন।

দীর্ঘদিনেও পাওনা টাকা ফেরত না দেয়ায় কিছুদিন আগে টাকার দাবীতে আঞ্জু বেগম রবিউলের ব্যবহৃত মোটর সাইকেল আটক করেন। পরে স্থানীয়দের মধ্যস্থতায় দুই মাসের মধ্যে টাকা ফেরত দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দেয় রবিউল ইসলাম। এ দিকে গত শনিবার গভীর রাতে রবিউল ৮/১০ লোকজন নিয়ে ওই নারীর বাড়ী গিয়ে তাকে জোরপূর্বক বের করে টাকা চাইলে তাকে মেরে ফেলার হুমকি দেয়।

রবিবার সকালে এ বিষয়ে ইউপি সদস্য রফিকুল ইসলামের কাছে অভিযোগ দিতে যান আঞ্জু বেগম। সেখান থেকে ফেরার পথে নাওডাঙ্গা ডিএস দাখিল মাদ্রাসা সংলগ্ন আবুল হাসেম বাজু’র বাড়ীর পাশে পাঁকা রাস্তায় পাওনাদার রবিউল ইসলামের দেখা হয় আঞ্জু বেগমের। সেখানে উভয়ের মধ্যে কথা কাঁটাকাঁটির এক পর্যায়ে আঞ্জু বেগমের গায়ের উপর মোটর সাইকেল তুলে দেয় রবিউল। প্রত্যক্ষদর্শী তৈয়ব আলী, রোজিনা বেগম ও রহিমা বেগম জানান,গায়ের উপর মোটর সাইকেল তুলে দিলে পাঁকা রাস্তার উপর পরে পরপর দুইবার বমি করে আঞ্জু বেগম। এসময় রবিউল পালিয়ে যায়। পরে স্থানীয়দের সহায়তায় তাকে ফুলবাড়ী হাসপাতালে পাঠানো হয়।

ফুলবাড়ী হাসপাতালের জরুরী বিভাগের চিকিৎসক ডাঃ কাজী ফাহাদ জানান, হাসপাতালে আসার আগেই ওই নারীর মৃত্যু হয়েছে। বিষয়টি পুলিশকে জানানো হয়েছে। ফুলবাড়ী থানার উপ-পুলিশ পরিদর্শক হাবিবুর রহমান হাবিব বলেন, মামলার প্রস্তুতি চলছে। লাশ উদ্ধার করে মর্গে পাঠানো হয়েছে।