নুর উদ্দিন সুমন, হবিগঞ্জ প্রতিনিধিঃ সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী চুনারুঘাটের কৃতি সন্তান ব্যারিস্টার সৈয়দ সাইয়েদুল হক সুমন বলেছেন, রাত জেগে জেগে লন্ডনে পথে পথে ট্রলি ঠেলে, মানুষের বাসায় বাসায় খাবার সরবরাহ করে টাকা রোজগার করেছি। সেই টাকা দিয়ে আমি ব্যারিস্টার হয়েছি। এখন ৪৫ লাখ টাকার গাড়িতে চড়ি, আরও একটা লাল গাড়ি আছে। এছাড়া চুনারুঘাটের উন্নয়নে ৩/৪ কোটি টাকা ব্যয় করেছি। এ টাকা এমনি আসেনি। আমাকে কঠোর পরিশ্রম করতে হয়েছে। কষ্ট করেই ব্যারিস্টার সুমনের জন্ম হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (১৮ জুন) হবিগঞ্জের চুনারুঘাটে ‘ব্যারিস্টার সুমন ফুটবল একাডেমি’র উদ্যোগে ফুটবল প্রশিক্ষণ চলাকালে তিনি এসব কথা বলেন। পরে তিনি এ সংক্রান্ত একটি ভিডিও ফেসবুকে পোস্ট করেছেন।

এ বিষয়ে ব্যারিস্টার সুমন বলেন, ফুটবল প্রশিক্ষণার্থীদের অনুপ্রাণিত করার জন্য আমার জীবনের কষ্টের গল্প বলেছি, কষ্ট করে সফল হওয়ার গল্প বলেছি। তিনি বলেন, চুনারুঘাটের উন্নয়নে যে টাকা ব্যয় করেছি এবং করে যাচ্ছি- এর এক টাকাও আমার পরিবারের নয়। হাড়ভাঙ্গা পরিশ্রম করে এ টাকা ইনকাম করেছি।

ফুটবল প্রশিক্ষণার্থীদের সিরিয়াস হওয়ার আহ্বান জানিয়ে সুমন বলেন, জীবনে কিছু অর্জন করতে হলে পরিশ্রম করতে হবে। এইচএসসি পরীক্ষার পর তিন মাস কঠোর পড়াশোনা করে আমি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে চান্স পেয়েছিলাম। তিন মাস পড়াশোনা করে ব্যারিস্টার ডিগ্রি অর্জন করেছি। তিন মাস জীবনের বহু বড় সময়। তাই আমি মনে করি তিন মাস ভালোভাবে নিয়মিত প্রশিক্ষণ নিলেই ভালো ফুটবলার হওয়া সম্ভব। প্রশিক্ষণের যাবতীয় ব্যয় তিনি বহন করবেন বলে এসময় আশ্বাস দেন ব্যারিস্টার সুমন।