রানীশংকৈল প্রতিনিধিঃ ঠাকুরগাঁওয়ের রানীশংকৈলে গত ১৪ জুন এক বৃদ্ধা মাতাকে জুয়ারু ছেলে নাসিম মার পিট করে এক হাত ভেঙে দিয়েছে এবং অন্য হাতটি দা দিয়ে কুপিয়ে জখম করেছে। এই ঘটনায় অসহায় মাতা ছেলের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ করেন। পড়ে এই নেক্কার জনক ঘটনাটি বিভিন্ন সামাজিক গণ মাধ্যমে ছরিয়ে পড়ে।

এই চাঞ্চল্যকর ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার ৮ নং নন্দুয়ার ইউনিয়ের রামপুর গ্রামে। অভিযোগ করে কোন ব্যবস্থা না নেওয়ায় আরোশা বেগম প্রেসক্লাবে আসে। পরে খবর পেয়ে ছেলে নাসিম তার মাকে বাড়ি নিয়ে যেতে আসে কিন্তু অসহায় মাতা বাড়ি যেতে না চাইলে আবার খারাপ ভাষায় গালাগালি করলে স্থানীয় সাংবাদিক সহ অন্যরাও এগিয়ে আসলে নাসিম তাদের উপরেও চড়াও হয়ে ওঠে।পড়ে শিবদিঘি কাঁচা বাজার প্রেসক্লাবের সামনে আবার মায়ের উপর নির্যাতন করার সময় ঘটনা স্থল থেকে নাসিম কে থানা পুলিশ খবর পেয়ে পুলিশের এস আই তৌফিক ও তার সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে গ্রফতার করে।

মাললার তদন্তকারী এস আই দীপংকর মুঠোফোনে জানায় রামপুর গ্রামের মৃত্যু রফিজউদ্দীনের স্ত্রী আরোশা বেগম (৫৫) নিজ ছেলে নাসিম(৩৫)ও ছেলের স্ত্রীর আর্জিনা বেগমের (৩৩) বিরুদ্ধে মার পিটি ও হুমকি প্রদানের অভিযোগে থানায় ২০ জুন মামলা দায়ের করেন। আর সেই মাললায় আজ ২২ জুন নাসিম কে প্যানেল কোট আইনে ৩২৩/৩২৫/ ও ৫০৬ ধারায় তাকে আটক করে জেল হাজতে পাঠানো হয়।