শ্রীমঙ্গল (মৌলভীবাজার) প্রতিনিধি: মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গল উপজেলার মির্জাপুর ইউনিয়নের বৌলাছড়া চা বাগানে পারিবারিক কলহের জের ধরে স্ত্রী অলকা তন্তুবায় (৩০) কুপিয়ে পর স্বামী চা শ্রমিক বিকুল তন্তুবায় (৩৫) গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করেছেন। তারা একই চা বাগানের বাসিন্দা।

নিহত অলকার ২ মেয়ে ও এক ছেলে সন্তান রয়েছে। রবিবার ভোররাতে শ্রীমঙ্গল উপজেলার মির্জাপুর ইউনিয়নের বৌলাছড়া চা বাগানে এ ঘটনা ঘটে। শ্রীমঙ্গল মির্জাপুর ইউনিয়ন পরিষদের সচিব নারায়ণ দাস জানান, স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে প্রায়ই পারবিারিক বিষয় নিয়ে ঝগড়া লেগে থাকত। ঘটনার দিন ভোররাতে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে একই বিরোধ আবারো দেখা দেয়।

এরই এক পর্যায়ে শোবার ঘরে দা দিয়ে কুপিয়ে খুন করে। পরে তিনি নিজেই একই ঘরের আড়ার সঙ্গে রশি পেঁচিয়ে গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করে। ওই সময় ছেলে সন্তানের চিৎকারে প্রতিবেশিরা এগিয়ে এসে দরজা খুলে রক্তাক্ত স্ত্রী ও তার স্বামীর ঝুলন্ত মৃতদেহ দেখে থানা পুলিশকে খবর দেয়।

শ্রীমঙ্গল থানার অফিসার ইনচার্জ মো. আব্দুছ ছালেক এ তথ্য নিশ্চিত করেন। তিনি জানান, পারিবারিক কলহের জের এ হত্যাকান্ড। তারা উভয়ে স্বামী ও স্ত্রী। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছে লাশের সুরতহাল করে ময়নাতদন্তের জন্য মৌলভীবাজার সদর হাসপাতাল মর্গে লাশ পাঠানো হয়েছে।