সাতক্ষীরা প্রতিনিধি: কিছুদিন আগে সাতক্ষীরার ভোমরা সড়কে অভিনব মাদবিরোধী অভিযানের পর বুধবার আবারও একই ধরনের অভিযান চালিয়েছে সাতক্ষীরা জেলা পুলিশ। কলারোয়া থানার সীমান্তবর্তী এলাকায় পুলিশের এই মাদকবিরোধী অভিযানে আটক সন্দেহভাজনদের মধ্যে ডোপ টেস্টে ১৫ জন পজিটিভ হয়েছেন।

কলারোয়া থানা পুলিশ, জেলা গোয়েন্দা শাখা এবং পুলিশ লাইন্স এর সদস্যেদের সমন্বয়ে মাদকবিরোধী অভিযান পরিচালনা করা হয়। অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সাতক্ষীরা সদর সার্কেল) মির্জা সালাহউদ্দিনের নেতৃত্বে পরিচালিত এ অভিযানে অন্যান্যের মধ্যে ছিলেন কলারোয়া থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) হারান চন্দ্র পাল, পুলিশ পরিদর্শক মোঃ আজিজুর রহমান, এসআই মনিরুল ইসলাম, এসআই তন্ময়, এসআই সোহরাব হোসেন, এসআই রেজাউল করিমসহ অন্যান্য পুলিশ সদস্যরা। সিভিল সার্জন কার্যালয়, সাতক্ষীরার মেডিকেল অফিসার ডা. জয়ন্ত সরকারও এসময় উপস্থিত ছিলেন।

সাতক্ষীরা জেলার বিভিন্ন থানা, পার্শ্ববর্তী জেলা যশোর ও খুলনার মাদকসেবীরা কলারোয়া থানার সীমান্তবর্তী এলাকা কেড়াগাছী, সোনাবাড়িয়া, চন্দনপুর সহ জালালাবাদ ও ঝিকড়া এলাকায় এসে মাদক সেবন করছে, এমন সংবাদের ভিত্তিতে এ অভিযান পরিচালনা করা হয়। বাহ্যিক লক্ষণ বিবেচনায় এবং উপস্থিত ডাক্তারের পরামর্শে মোট ২৬ জনকে মাদকসেবী সন্দেহে ডোপ টেস্টের জন্য সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হয়।

ডোপ টেস্ট শেষে ১৫ জনের ক্ষেত্রে রিপোর্ট পজিটিভ এবং ১১ জনের ক্ষেত্রে রিপোর্ট নেগেটিভ আসে। মাদকাসক্ত প্রমাণিত ১৫ জন এর নিকট যে সমস্ত মাদক ব্যবসায়ী মাদক বিক্রি করেছিল, তাদেরকে শনাক্তের কাজ চলছে। মাদকসেবী প্রমাণিত ১৫ জনের বিরুদ্ধে কলারোয়া থানায় ‘মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইন ২০১৮’ এ মামলা রুজু প্রক্রিয়াধীন।