বাড়ি লাইফ স্টাইল যেসব রোগের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায় পেয়ারা

যেসব রোগের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায় পেয়ারা

আমাদের দেশে যে কয়টি ফল মোটামুটি সারাবছরেই পাওয়া যায়, তার মধ্যে পেয়ারা অন্যতম। তবে বর্ষাকালে এই ফলটির কদর যেন একটু বেড়েই যায়। পেয়ারাকে আবার ‘সুপার ফ্রুট’ও বলা হয়। কারণ এতে স্বাদের পাশাপাশি রয়েছে বিভিন্ন পুষ্টিগুণ। তাই দেরি না করে সাশ্রয়ী এই ফল খাওয়ার অভ্যাস করুন এই গুণগুলোর কারণে:

রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়
পেয়ারাতে প্রচুর পরিমাণ ভিটামিন সি রয়েছে। এই ভিটামিনটি রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি করে। এর পাশাপাশি শরীরকে বিভিন্ন রোগের সঙ্গে টিকে থাকার ক্ষমতা করে দেয়। আর শরীরে যদি কোনো চুলকানি বা মুখে ঘা থাকে তাহলে সেক্ষেত্রেও পেয়ারা বেশ উপকারী।

ক্যানসারের ঝুঁকি কমায়
সুস্বাদু ফল পেয়ারাতে রয়েছে লাইকোপিন, ভিটামিন সি, কোয়ারসেটিন এর মতো বেশকিছু অ্যান্টি অক্সিডেন্ট উপাদান। এগুলো শরীরে ক্যানসারের কোষের বৃদ্ধি ঘটতে দেয় না। বিশেষ করে এটি প্রোসটেট ক্যানসার এবং স্তন ক্যানসার প্রতিরোধ করে।

হৃদপিণ্ড সুস্থ রাখে
নিয়মিত পেয়ারা খেলে রক্তচাপ ও রক্তের লিপিড কমে যায়। পেয়ারাতে প্রচুর পরিমাণ পটাশিয়াম, ভিটামিন সি রয়েছে। পটাশিয়াম নিয়মিত হৃদস্পন্দনের এবং উচ্চ রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণ করতে পারে। নিয়মিত লাইকোপিন সমৃদ্ধ গোলাপি পেয়ারা খেলে কার্ডিওভাস্কুলার রোগের ঝুঁকি কমে।

ডায়বেটিস নিয়ন্ত্রণ করে
বিভিন্ন অঞ্চলের চিকিৎসা শাস্ত্রে ডায়বেটিস নিয়ন্ত্রণে পেয়ারার ব্যবহার হয়ে আসছে। পেয়ারার রসে থাকা বিভিন্ন উপাদান ডায়বেটিস মেলাইটাসের চিকিৎসায় খুবই কার্যকর। ডায়াবেটিস প্রতিরোধে পেয়ারা পাতাও যথেষ্ট উপকারী। এজন্য কচি পেয়ারা পাতা শুকিয়ে মিহি গুঁড়ো করে ১ কাপ গরম পানিতে ১ চা চামচ দিয়ে ৫ মিনিট ঢেকে রাখুন। তারপর খান, উপকার মিলবে।

ঠাণ্ডাজনিত সমস্যা দূর করে
ঠাণ্ডাজনিত সমস্যার মধ্যে যেমন ব্রংকাইটিস অন্যতম। এই সমস্যা সমাধানে পেয়ারা বেশ কার্যকর। উচ্চ পরিমাণে আয়রন এবং ভিটামিন সি থাকায় এটি শ্লেষ্মা কমিয়ে দিতে পারে। আর কাঁচা পেয়ারা ঠাণ্ডাজনিত সমস্যা সরাসরি দূর করতে কার্যকর।

রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণ করে
পেয়ারা রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। এতে থাকা পটাশিয়াম রক্তচাপ কমাতে সাহায্য করে।

পেটের স্বাস্থ্য ভালো রাখে
যেকোনো ব্যাকটেরিয়া সংক্রমণ বা পেটের গোলযোগে কার্যকরী পেয়ারা। এই ফলে রয়েছে অ্যাস্ট্রিজেন্ট ও অ্যান্টি-মাইক্রোবাল উপাদান। ফলে এটি পাকস্থলির স্বাস্থ্য ভালো রাখতে সাহায্য করে। তাছাড়া ত্বক ভালো রাখার সঙ্গে সঙ্গে ত্বককে টানটান রাখে এই ফলটি।

দৃষ্টিশক্তি ভালো করে
ভিটামিন এ চোখের জন্য উপকারী। পেয়ারাতে থাকা ভিটামিন এ কর্নিয়াকে সুস্থ রাখে এবং রাতকানা রোগ প্রতিরোধ করে। প্রতিদিনের খাদ্য তালিকায় পেয়ারা রাখুন। কাঁচা পেয়ারা ভিটামিন এ এর ভালো উৎস।